আবুল খায়ের গ্রুপের কর্মকর্তা হত্যা : প্রধান আসামির স্বীকারোক্তি

প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রাম নগরে আবুল খায়ের গ্রুপের এক কর্মকর্তাকে কুপিয়ে খুনের ঘটনার প্রধান আসামি রাকিব বেপারী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। গত শনিবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ পারভেজের আদালত তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

রাকিব বেপারী (২৪) ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার ভাষানচর গ্রামের কলম বেপারীর ছেলে। তিনি চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ শিল্প এলাকার আবুল খায়ের কনজিউমার গুডস ডিভিশনে আওলাদ নামের একজন কন্ট্রাক্টরের অধীনে ওয়েল্ডিং মিস্ত্রি হিসেবে কাজ করতেন।

পুলিশ জানায়, আবুল খায়ের কনজিউমার গুডস ডিভিশনের কারখানায় নির্মাণ কাজ তদারকির দায়িত্বে ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির মানবসম্পদ বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক শাহাদাত হোসেন ভূঁইয়া। ২০১৬ সালের ২৭ ডিসেম্বর কাজের মান নিয়ে বাইরের ঠিকাদারের নিয়োজিত শ্রমিকদের বকাঝকা করেন তিনি। এরপর ২৮ ডিসেম্বর সকালে তিনি কারখানায় গেলে ঠিকাদারের অধীনে থাকা চারজন শ্রমিক মিলে তাকে কুপিয়ে জখম করেন। প্রথমে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ৩১ ডিসেম্বর সেখানেই তার মৃত্যু হয়। হামলার ঘটনায় ওই দিনই হত্যাচেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়।

এ ঘটনায় চার আসামির মধ্যে আমিন, শাব্বির ও মিঠু নামে তিনজনকে ঘটনাস্থল থেকেই গ্রেফতার করা হয়। কিন্তু প্রধান আসামি রাকিব বেপারী গ্রেফতার হচ্ছিল না। যিনি নিজেই ধারালো রামদা দিয়ে শাহাদাতকে কুপিয়েছেন বলে অভিযোগ আছে।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার এসআই মোহাম্মদ আইয়ুব উদ্দিন বলেন, শুক্রবার ঢাকার শাহ আলী থানার দক্ষিণ পাশের মেঘনা স্টোর থেকে রাকিবকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জবানবন্দিতে রাকিব জানিয়েছে, বকাঝকা করায় শাব্বির, আমিন ও সে আবুল খায়ের গ্রুপের কর্মকর্তা শাহাদাতকে আঘাত করেছে। মিঠু তাদের পেছনে থাকলেও দেরি হওয়ায় সে আঘাত করতে পারেনি।

"