মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় প্যানেল মেয়রকে হাতুড়িপেটা

প্রকাশ : ১৪ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০

শরীয়তপুর প্রতিনিধি

মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় শরীয়তপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র-২ ও সদর উপজেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হোসেন মো. আলমগীর মৃধাকে (৩৮) হাতুড়িপেটা করেছে এলাকার চিহ্নিত মাদক কারবারিরা। গতকাল শুক্রবার ভোর পৌনে ৬টার দিকে শরীয়তপুর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাগদী দক্ষিণপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো ফজরের নামাজ পরে প্যানেল মেয়র আলমগীর মৃধা প্রাতঃভ্রমণ শেষে তার নির্বাচনী এলাকার জাকির মাদবরের চায়ের দোকানে চা পান করছিলেন। তখন কাগদী গ্রামের চিহ্নিত মাদক কারবারি রমিজ উদ্দিন বেপারীর ছেলে শাহজালাল বেপারী, হারুন মাদবরের ছেলে জালাল মাদবর ও জলিল শেখের ছেলে সাদ্দাম হোসেন শেখ মিলে প্যানেল মেয়রকে ডেকে নিয়ে এলোপাতাড়িভাবে শরীরের বিভিন্নস্থানে হাতুড়ি দিয়ে পেটায়। তখন তিনি জ্ঞান হারিয়ে সড়কে পড়ে যান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে ঢাকা মেডিক্যালে রেফার করেন। কিছুদিন আগে প্যানেল মেয়র একটি সভা ডেকে ওই মাদক কারবারিদের মাদক ব্যবসা থেকে বিরত থাকতে বলেন। এ কারণেই প্যানেল মেয়র আলমগীর মৃধার ওপর তারা হামলা চালিয়েছে বলে জানান স্থানীয় মিল্টন সরদার।

শরীয়তপুর পৌরসভার মেয়র মো. রফিকুল ইসলাম কোতোয়াল বলেন, যারা প্যানেল মেয়রের ওপর হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়েছে তারা চিহ্নিত মাদক কারবারিরা। তাদের দ্রুত গ্রেফতার করা হোক, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক। এ হামলার তীব্র নিন্দা জানাই।

 

"