উৎসবে মুখরোচক ‘পাকন’

প্রকাশ : ০৪ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

গ্রামবাংলার খুব সুন্দর একটি আবিষ্কার হলো ‘পাকন’; যা বছরজুড়েই বানানো হয়। সকালে কিংবা বিকেলে এক কাপ চায়ের সঙ্গে এক টুকরো পাকন, দারুণ অনুষঙ্গও বটে। আর বাংলাদেশের বিভিন্ন উৎসবে অতিথি আপ্যায়নে পাকন প্রথম সারিতেই থাকে। অসাধারণ স্বাদের চার পদের পাকন তৈরি নিয়ে আজকের আয়োজন। রন্ধনশিল্পী তানজিন তিপিয়া

নারকেলি পাকন

উপকরণ : আটা ২ কাপ, পানি প্রয়োজনমতো, লবণ ১ চা চামচ, তেল ৫ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে মাখিয়ে রুটির খামির তৈরি করতে হবে। ১০ মি. ী ২০ ভাগ করুন। রুটি বেলে মাঝখানে নারকেলের পুর ভরে চারকোনা করে ভাঁজ করে মাঝারি আঁচে ডুবু তেলে সোনালি করে ভেজে ফেলুন। ব্যস, নারকেলি পাকন একদম তৈরি।

নারকেলের পুর : একটি নারকেল কোরানো ও ১ কাপ চিনি একত্রে জ্বাল দিন। চিনি গলে নারকেল লালচে হয়ে এলেই পুর তৈরি হবে।

 

ছাঁচ পাকন

উপকরণ : ময়দা ২ কাপ+৩ টেবিল চামচ, পানি ২ কাপ, লবণ ১/২ চা চামচ, চিনি ৪ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে মাখিয়ে পাতলা মিশ্রণ তৈরি করে নিন। কড়াইতে বেশি করে তেল গরম করুন, যাতে ছাঁচের লোহাটা যেন বরাবর ডুবে যায়। খুব গরম ছাঁচটি মিশ্রণে অর্ধেক ডুবিয়ে খুব তাড়াতাড়ি তেলে হালকা করে ভাজতে থাকুন যাতে পাকন ছাঁচ থেকে আলাদা হয়ে যায়। হালকা বাদামি হলেই পাকন তুলে ফেলুন। এভাবেই তৈরি করে নিন সব মচমচে ছাঁচ পাকন।

বি:দ্র: ছাঁচের লোহাটি খুব গরম না হলে মিশ্রণটি ছাঁচে লাগবে না। আর প্রক্রিয়াটি যতদূর সম্ভব তাড়াতাড়ি করার চেষ্টা করবেন। এই পাকন বায়ুরোধী বয়ামের তলায় টিস্যু/নেপকিন/পাতলা কাপড় দিয়ে ৭ দিন রাখা যাবে।

 

নোনতা পাকন

উপকরণ : আটা ১ কাপ, পানি প্রয়োজনমতো, লবণ ১ চা চামচ, তেল ৩ টেবিল চামচ, কালিজিরা ১/২ চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ একত্রে মাখিয়ে রুটির খামির তৈরি করে ১০ মিনিট পর ১০ ভাগ করুন। এবার রুটি বেলে ২ ভাঁজ করে চুলোর আঁচ মাঝারি রেখে ডুবু তেলে সোনালি করে ভেজে ফেলুন। নোনতা পাকন/নিমকি একদম তৈরি।

বি: দ্র: এই পাকন বায়ুরোধী বয়ামের তলায় টিস্যু/নেপকিন/পাতলা কাপড় দিয়ে ৭-১০ দিন রাখা যাবে।

 

পুয়া পাকন

উপকরণ : চালের গুঁড়া ১ কাপ, ময়দা ১ কাপ, পানি ২ কাপ, চিনি ৭ টেবিল চামচ, ডিম ২টি, লবণ ২ চিমটি।

প্রস্তুত প্রণালি : সব উপকরণ মাখিয়ে পাতলা মিশ্রণ তৈরি করুন, চুলোর আঁচ মাঝারি রেখে ডুবু তেলে সোনালি করে ভেজে ফেলুন। পুয়া পাকন একদম তৈরি।

বি: দ্র: মিশ্রণটি একটি জগ/মগে তৈরি করুন। এতে পুয়া তেলে ছাড়তে সুবিধা হবে এবং পুয়ার আকার সুন্দর হবে।

"