মুখোমুখি

‘মানুষ কেমন করে তাকিয়ে ছিল’

প্রকাশ : ১৯ মে ২০১৭, ০০:০০

তুহিন খান নিহাল

গত বছর স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘বখাটে’ এবং মমতাজের ‘লোকাল বাস’ শিরোনামের মিউজিক ভিডিওতে অভিনয় করে বেশ প্রশংসিত হয়েছেন লাক্স তারকা মুমতাহিনা টয়া। এবার নতুন আরেকটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে কাজ করছেন তিনি। গত ৮ মে এই ছবির শুটিং শেষ হয়েছে, নাম ‘রূপ’। পরিচালনা করেছেন ভিকি জাহেদ। এ সম্পর্কে প্রতিদিনের সংবাদের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি-

প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘বখাটে’তে অভিনয়ের ব্যাপারে আপনার আগ্রহ ছিল কেমন?

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে খুব বেশি চিন্তা-ভাবনা করে আসা হয়নি। গল্পটা ভালো লেগেছিল। মনে হচ্ছিল, গল্পটা দর্শকরা গ্রহণ করবে। সেই হিসেবেই স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে আসা।

সিয়ামের সঙ্গে আপনার অভিনয়ের বিষয়ে জানতে চাই।

আসলে ‘বখাটে’ শর্টফিল্মে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার ঘটনাটি ছিল খুব মজার। আমি আর সিয়াম কাজ শেষ করে একটা অফিসে ঢুুকলাম। তখন হৃদয় ভাই আসে ওই অফিসে; এবং আমাদের রসায়নটা দেখেই বলে, ‘এটা তো নতুন লুক; ভালো লাগতে পারে।’ এরপরই কাজটা করা। কিন্তু আমি যে তখন শর্টফিল্মে কাজ করছি, এটা একবারও চিন্তা করিনি। নিজের চরিত্রকে প্রাধান্য দিয়েই কাজটা শেষ করেছি। দর্শকদেরও বেশ সাড়া পেয়েছি।

বর্তমান ব্যস্ততা কী নিয়ে?

এখন আমি একটি ছবির কাজ করছি। ছবিটির নাম ‘বাঙালী বিউটি’। বেশ কিছুদিন এই ছবির শুটিং হয়েছে। আরো বাকি আছে। এই ছবিটি নিয়েই এখন আমার ব্যস্ততা। মাঝে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘রূপ’ করলাম।

কোন ধরনের চরিত্রে অভিনয় করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন?

সম্পূর্ণ ভিন্ন ধরনের চরিত্রে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি। যেমন- গল্পটা হবে সাধারণ, কিন্তু মেসেজটা হবে খুব স্ট্রং।

দর্শকদের সাড়ার কথা যদি বলি, মিউজিক ভিডিও, নাটক, শর্টফিল্ম- তাহলে কোনদিকে ভালো সাড়া পাচ্ছেন?

এখন ভালো কাজ যেটাই করি, সেটাই দর্শকরা গ্রহণ করে। সেটা নাটক, মিউজিক ভিডিও, শর্টফিল্ম কিংবা টিভিসি। এ ব্যাপারে আমি বলবো, ভালো নির্মাণ দর্শকরা বেশি পছন্দ করে। এর প্রমাণ হিসেবে বললে, আমার মিউজিক ভিডিও এবং শর্টফিল্ম দর্শকরা ভালোভাবে গ্রহণ করেছে। তাই দর্শকরা চায় ভালো কিছু। এর জন্য কোনো ক্যাটাগরি লাগে না।

‘রূপ’ চলচ্চিত্রে আপনার অভিনয় সম্পর্কে কিছু বলবেন?

এই চলচ্চিত্রে আমার চরিত্রের নাম ‘রাবেয়া’; অ্যাসিডদগ্ধ একটি মেয়ে। আমরা সাধারণ লাইফে দেখি, যারা অ্যাসিডদগ্ধ, তারা নিজেকে খুব নিচু ভাবে। কিন্তু আমরা এই গল্পে দেখিয়েছি, কিভাবে নিজের আত্মবিশ্বাস কাজে লাগানো যায়। আর আমার মুখের এক পাশ অ্যাসিডদগ্ধ হলেও অন্য পাশটা খুব সাজিয়ে রাখি। নিজেকে বিষয়টি বুঝতে দেই না।

ব্যক্তি টয়া আর মডেল টয়ার মধ্যে পার্থক্য?

আমি কাজকে সব সময় গুরুত্ব দিয়ে থাকি। আমার কাছে কাজের গুরুত্বটাই আগে। আর ব্যক্তিগতভাবে আমি মানুষকে সহজে বিশ্বাস করি। তবে আমি কাজের বাইরে অনেক অলস।

"