শাহজাদপুরের লক্ষ্মীমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়

এক বছরে বেড়েছে জীবনের ঝুঁকি নেওয়া হয়নি কোনো উদ্যোগ

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলায় চরম ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে পৌর সদরের পুকুরপাড় মহল্লার লক্ষ্মীমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। স্কুল আছে, রাস্তা নেই। যদিও একটু কোনো রকমে রাস্তা করা হয়েছে সেটাও বাঁশ দিয়ে তৈরি। একটু বৃষ্টি হলে বা বন্যায় তার ওপর দিয়ে শিশুদের যাতায়াত কষ্টসাধ্য হয়ে যায়। স্কুলের দুটি ভবন আছে, একটি ভবনের দুটি রুমের এক-তৃতীয়াংশে পাঁচ থেকে ছয় ফুট দেবে গিয়ে বিশাল গর্তে পরিণত হয়েছে ২০১৬ সালের বন্যায়। স্কুলের চারপাশে কচুরিপানা ভর্তি নোংরা পানি জমে থাকে সারা বছর। স্কুলে মোট ২৪ শতাংশ জায়গার মধ্যে জেগে রয়েছে মাত্র ৪-৫ শতাংশ জায়গা বাদবাকি অংশ তলিয়ে থাকে পানির নিচে। এ অবস্থায়ই স্কুল চালাচ্ছেন ও ক্লাস নিচ্ছেন শিক্ষকরা। যা শিশু ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক খুরজেসতুরা খানম বলেন, গত বছর বন্যায় দুটি রুমের মেঝে ধসে গেছে। স্কুলের আসার রাস্তার সমস্যা। আমি শিক্ষা কর্মকর্তা, ইউএনও, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সবাইকে জানিয়েছি। তারা সমস্যাগুলো দেখে গিয়েছে। রেজুলেশন এবং ছবি তুলে পাঠিয়েছি। এখনো তারা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। একই অভিযোগ করে স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আমিরুল ইসলাম শাহু বলেন, আমাদের স্কুলের রুমের মেঝে, স্কুলের দুই ভবনের মাঝখানে নিচু জায়গায় পানি জমে থাকা, স্কুলে যাতায়াতের রাস্তার সব সমস্যা শিক্ষা কর্মকর্তা ও ইউএনওকে বারবার জানিয়েছি। তারা এ বিষয়ে কোনো উদ্যোগ নেয়নি। রাস্তাটির বিষয়ে পৌরসভাকেও অনুরোধ করেছি তারাও মেরামতের প্রতিশ্রুতি দিলেও কোনো ফল মেলেনি।

এ বিষয়ে শিক্ষা কর্মকর্তা ফজলুল হক বলেন, আমি নতুন এসেছি। সামনে আমাদের শিক্ষা কমিটি মিটিং আছে, সেখানে এ বিষয়ে আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

ইউএনও আলীমুন রাজীব বলেন, শুধু লক্ষীমতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নয়, আরো কয়েকটি স্কুলের সংস্কারের জন্য কাগজপত্র, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। নির্দেশনা এলেই কাজ করা হবে।

"