মুক্তিপণের দাবিতে সুন্দরবনে ১০ জেলেকে অপহরণ

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৭, ০০:০০

বাগেরহাট প্রতিনিধি

বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জে অজ্ঞাত বনদস্যুরা মুক্তিপণের দাবিতে ১০ জেলেকে অপহরণ করেছে। অজ্ঞাতনামা বনদস্যুরা একটি মোবাইল ফোন নাম্বার দিয়ে ওই নাম্বারে যোগাযোগ করে মুক্তিপণের টাকা পরিশোধ করতে বলে গেছে। অন্যথায় জিম্মি জেলেদের হত্যা করার হুমকি দিয়েছে বনদস্যুরা।

সুন্দরবন থেকে ফিরে আসা জেলে ও জিম্মি জেলেদের মহাজন সূত্রে জানা গেছে, রোববার ভোরে পূর্ব সুন্দরবনের হরিণটানা ও কলামুলা এলাকার নদীতে মাছ ধরতে ছিল জেলেরা। এ সময় ১০-১১ জনের সশস্ত্র বনদস্যুবাহিনী ট্রলারযোগে এসে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায় এবং তাদেরকে মারধর করে। পরে বনদস্যুরা ১০ নৌকা থেকে ১০ জন জেলেকে মুক্তিপণের দাবিতে গভীর বনে ধরে নিয়ে যায়। এ সময় তারা একটি মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করার নির্দেশ দেয়।

অপহৃত জেলেরা হচ্ছে, শরণখোলা উপজেলার সোনাতলা গ্রামের শাহজাহান মুন্সীর ছেলে আলী হোসেন মুন্সী, উত্তর রাজাপুর গ্রামের ছোমেদ গাজীর ছেলে লাল মিয়া গাজী, পানিরঘাট এলাকার ইছাহাক মোল্লার ছেলে জিয়ারুল মোল্লা, সোনাতলার নান্না মাতুব্বরের জেলে সহিদুল ইসলাম, খুড়িয়াখালীর জালাল মোল্লার জেলে দেলোয়ার হোসেন ও তাফালবাড়ির মোশারেফ হোসেনের জেলে মাসুদ মিয়ার নাম জানা গেছে। অন্য জেলেদের নাম জানা যায়নি। এ ব্যাপারে কোস্টগার্ড পশ্চিমজোন অপারেশন কমান্ডার মো. ফরিদুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, ঘটনাটি তিনি জেলেদের মাধ্যমে শুনেছেন এবং তাদের উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছেন।

"