জমজমাট ঈদের কেনাকাটা ফুরসত নেই দোকানিদের

প্রকাশ : ১৯ জুন ২০১৭, ০০:০০

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি

আর মাত্র কয়েকদিন পরেই ঈদ। এই ঈদকে সামনে রেখে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার সব মার্কেট কেনাকাটায় বেশ জমজমাট হয়ে উঠেছে। প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে বেচাকেনা। একটুও ফুরসত নেওয়ার সময় নেই দোকানিদের। মার্কেটগুলোতে ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি বছরের মতো এবারো ভারতীয় পোশাকের চাহিদা বেশি। রমজানের প্রথমদিকে বেচাকেনা একটু কম হলেও যতই দিন যাচ্ছে, ততই ক্রেতাদের ভিড় বাড়ছে। গতকাল রোববার উপজেলার ভাঙ্গুড়া বাজারের একদরের জুয়েল বস্ত্র বিতান, বস্ত্রহাট, জাহাঙ্গীর বস্ত্রালয়, অগ্রণী বস্ত্রালয়, শরৎনগর বাজারের স্মৃতি বস্ত্রালয় এবং মোল্লা বস্ত্রালয় ঘুরে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেছে। তবে তুলনামূলকভাবে পোশাকের দোকানে নারী ক্রেতাদের ভিড় বেশি লক্ষ করা গেছে। এসব নারী ক্রেতা হরহামেশাই কিনছে ভারতীয় শাড়ি, বিভিন্ন টিভি সিরিয়ালের নাম করা সালোয়ার-কামিজ-থ্রিপিস এবং লেহেঙ্গা জাতীয় পোশাক। রফিক উদ্দিন সুপার মার্কেটের জুয়েল বস্ত্রালয়ের স্বত্বাধিকারী আলহাজ মো. শহীদুল ইসলাম জানান, এবার দুলহান, রাজকুমারী, বাহুবলী, রাখিবন্ধন, রাখিমণি, মুদি, জুলফি, সুলতান ওয়ান এবং সুলতান টু নামের বিভিন্ন আইটেমের পোশাকের চাহিদা বেশি। বিভিন্ন বয়সী নারীদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে কাতান শাড়ি, বেনারসি, পাকিজা এবং ফেমাশীলসহ পাকিস্তানি ও চায়না গজ কাপড়। তবে গত বছর যে সিরিয়ালের নামের কাপড়ের চাহিদা বেশি ছিল, এবার অনেকে তা ভুলে গিয়ে নতুন নতুন নামের সিরিয়ালের পোশাক কিনতে বেশ স্বচ্ছন্দ বোধ করছে। ঈদকে নতুন সাজে সাজানোর জন্য দূর-দূরান্ত থেকে ভরদেশ এলাকা (নদী এলাকা) থেকে মানুষ ছুটে আসছে মনের আনন্দে। মার্কেটগুলোতে এভাবেই চলছে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ঈদের কেনাকাটা।

"