ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ

প্রকাশ : ১৮ জুন ২০১৭, ০০:০০

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি

নড়াইলের লোহাগড়ায় সিজারিয়ান অপারেশনের প্রায় আড়াই ঘন্টা পর হাসপাতাল কাম ক্লিনিক কর্তৃপক্ষের গাফিলতি ও ভুল চিকিৎসায় তৃষ্ণা রাণী বিশ্বাস(৩০) নামে দুই সন্তানের জননীর মৃত্যু অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে জয়পুরস্থ বিসমিল্লাহ হাসপাতাল এন্ড ডায়াগণষ্টিক সেন্টারে সিজারিয়ান অপারেশনের পর ওই প্রসূতির মৃত্যু হয়। জানা গেছে, এ ঘটনায় ১ লাখ ২৫ হাজার টাকায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে এবং ২৫ হাজার টাকায় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ক্ষমতাশালীরা চাপে ফেলে বিষয়টির আপোষরফা করেছে বলে সূত্র জানায়। প্রসূতি তৃষ্ণার মা শংকরী রানী বিশ্বাস ও মামি শ্বাশুড়ি গিতা অভিযোগ করেন, সম্পূর্ণ সুস্থ অবস্থায় তৃষ্ণাকে ক্লিনিকে আনা হয়েছিল। কিন্তু ডাক্তারদের ভুল চিকিৎসা ও গাফিলতিতে তার মৃত্যু হয়েছে। চিকিৎসক তাজরুল ইসলাম তাজ মুঠোফোনে জানান, অপারেশনের পর রোগীর বমি ও শ্বাসকষ্ট শুরু হয়েছিল। খাদ্যনালী ও শ্বাসনালী এক সাথে থাকে। সম্ভবত বমি শ্বাসনালীতে ঢুকে গিয়ে রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ডা. সুব্রত কুমার বলেন, আগেই রোগীর শ্বাস কষ্টের সমস্যা ছিল। অপারেশন করার পর শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় বমি হয় এবং বমি শ্বাসনালীতে আটকে প্রসূতির মৃত্যু হয়। ডাক্তার তাজরুল ইসলাম তাজ বলেন, আমি বর্তমানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে কর্মরত। পিজি হাসপাতালে ইউরোলজীতে এমএস করছি। আমার ট্রেনিং করা আছে। অভিজ্ঞতার আলোকে অপারেশন করছি। ক্লিনিক কাম হাসপাতালের পরিচালক মো. ইখলাছুর রহমান বলেন, ‘পরে কথা বলবো।’ লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘কেউ তো আমাদের কাছে কোন অভিযোগ দেয়নি। তবে খবর শুনে টহল পুলিশ পাঠিয়েছিলাম।’

"