ড্রেনেজ ব্যবস্থা বিকল বৃষ্টিতে বাজারে হাঁটু পানি

প্রকাশ : ১৮ জুন ২০১৭, ০০:০০

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মঙ্গলেরগাঁ বটতলা বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়ায় পানি নিঃস্কাশনের আর কোন উপায় না থাকার কারণে সামন্য বৃষ্টিতেই বাজারে হাঁটু পানি। বটতলা বাজারের অবস্থান তিন রাস্তার মোড়ে হওয়ায় উপজেলার দুটি ইউনিয়ন পিরোজপুর ও শম্ভুপুরার রামদেরগাঁও, চৌধুরীগাঁও, কাজিরগাঁও, দূর্গাপ্রসাদ, তাতুয়াকান্দি, মঙ্গলেরগাঁও, দুধঘাটা, চাঁন্দেরচক, নয়াগাঁও, কোরবানপুর, পাঁচানী, শান্তি নগর, খাসেরগাঁও, মীরবহরের কান্দি ও চরগোয়ালদীসহ ১৫টি গ্রামের মানুষের নিত্যপণ্য বিকিকিনির জন্য এই বাজারের গুরুত্ব অনেক বেশি।

জানা যায়, বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে বাজারের কিছু অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সময় বাজার কমিটি ভেঙ্গে ফেলা হয়। তার পর থেকে বাজারের কোন নিয়ন্ত্রন ব্যবস্থা ও কমিটি না থাকায় দীর্ঘদিন কোন সংস্কার কাজ না হওয়ায় বর্তমানে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। বিকল্প পানি নিঃস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টির কারণে বাজার হাঁটু পানিতে তলিয়ে যাওয়ার ফলে দুটি ইউনিয়নের কয়েক হাজার ক্রেতা-বিক্রেতাদের দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। স্থানীয় বটতলা বাজারের মাছ ব্যবসায়ী বশির মিয়া বলেন, আমি এই বাজারের ক্ষুদ্র মাছ ব্যবসায়ী। প্রতিদিন বাজারে মাছ বিক্রি করে আমার সংসার চলে। সামান্য বৃষ্টি হলেই বাজার তলিয়ে যায় বাজারে কাষ্টমার আসেনা মাছও বিক্রি করতে পারিনা। সংসার চালাতে হিমসিম খেতে হয়।

সবজি বিক্রেতা শাহ আলম মিয়া বলেন, বছরের বেশির ভাগ সময়ই বটতলা বাজার বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যায়। আমি সামান্য একজন সবজি বিক্রেতা। বাজারে পানি থাকার কারনে ক্রেতা আসতে পারেনা সেই জন্য সবজিও বিক্রি করতে পারিনা। তাই ৫ সদস্যের পরিবার নিয়ে ধার দেনা করে চলতে হয়।

পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান জানান, বাজার কমিটি ও নিয়ন্ত্রন ব্যবস্থা না থাকার ফলে দীর্ঘদিন বাজারের কোন সংস্কার কাজ হয়নি। বরাদ্ধ পেলেই বাজারটির ড্রেনেজ ব্যবস্থাসহ পুনরায় সংস্কার কাজ শুরু করা হবে।

সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহীনুর ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন যাবত মঙ্গলেরগাঁও বটতলা বাজারটি কমিটি ছাড়া চলতেছে। শীঘ্রই বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যাওয়া বটতলা বাজারের সংস্কার কাজ হবে।

"