সহায়তার দাবিতে ক্ষতিগ্রস্তদের ইউএনও অফিস ঘেরাও

প্রকাশ : ২০ মে ২০১৭, ০০:০০

রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি

ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলায় কালবৈশাখীতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সহযোগিতা না করার প্রতিবাদে গত বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কার্যালয় (ইউএনও) ঘেরাও করেছেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। একই সঙ্গে ঠাকুরগাঁও-৩ আসন রানীশংকৈল উপজেলার স্থানীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ইয়াসিন আলী, মহিলা সংরক্ষিত আসনের এমপি সেলিনা জাহান লিটার পক্ষ থেকেও ক্ষতিগস্তদের কোনো কিছু দিয়ে সহযোগিতা না করার অভিযোগ উঠেছে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছ থেকে। গত ১৫ মে বিকেলে হঠাৎ কালবৈশাখীতে সাধারণ মানুষের ঘরবাড়িসহ আবাদি জমির কয়েক হাজার বিঘা ধান, ভুট্টাসহ নানান ফসলের ক্ষতি হয়।

সভায় জানানো হয়, উপজেলায় হোসেনগাঁও ও লেহেম্বা ইউনিয়নের এলাকার লোকজনের যে ক্ষতি হয়েছে, যা সহজে পূরণ হওয়া নয়। এদিকে কালবৈশাখী ঝড়ে ঘরবাড়ি তছনছ ক্ষেতের ফসল নেই ঘরে চাল নেই, খাবার নেই, মহাজনের চাপ, এনজিওদের চাপ, পকেটে টাকা নেই। অনাহারে দিনযাপন করছেন ঝড়ে ক্ষতিগস্ত মানুষ অথচ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করার নির্দেশনা দিয়ে দায় শেষ করেছেন প্রশাসন এমন অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্তদের। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দেখা-সাক্ষাৎ ছাড়া কোনো কিছু দিয়ে সহযোগিতা না করার অভিযোগ করা হয়।

ইউএনও অফিস ঘেরাও কর্মসূচিতে পরবর্তী এক সংক্ষিপ্ত সভায় ইউএনও খন্দকার মো. নাহিদ হাসান তাৎক্ষণিক ১০ হাজার টাকা দেন। সেই সঙ্গে উপজেলা পরিষদে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এক দিনের বেতন দিয়ে সহযোগিতা এবং ঊর্ধŸতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। এ ছাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সভাপতি অধ্যাপক সইদুল হক ক্ষতিগ্রস্তদের খাবারের চাল দিয়ে সহযোগিতা করার ঘোষণা করা হয়।

ঘোরাও কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন-আওয়ামী লীগের উপজেলা সভাপতি অধ্যাপক সইদুল হক, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাজউদ্দীন, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

"