ছাদ ধসে পড়া ভবনে চলছে পাঠদান, আতঙ্কে শিক্ষক-শিক্ষার্থী

প্রকাশ : ২০ মে ২০১৭, ০০:০০

মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে চলছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান। ভবনটির ছাদের একটি বড় অংশ ২০০৯ সালে ধসে পড়ে। ২০১৩ ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। যে কোন সময় ছাদের অন্যন্য অংশসমূহ ভেঙ্গে পড়তে পারে জেনেও ওই ছাদের নিচেই চলছে ২৬৫নং উত্তর ডেউয়াতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টির পাঠদানসহ সকল দাপ্তরিক কাজকর্ম। এখানে প্রাক প্রাথমিক ও অফিসিয়াল কাজের জন্যও কোন আলাদা কক্ষ নেই। শ্রেণি কক্ষেই চলে অফিসিয়াল সকল কাজ।

জিউধরা ইউনিয়নের ওই বিদ্যালয়টির বেহাল অবস্থা নিয়ে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আমাদের এখানে লেখাপড়ার কোনই পরিবেশ নেই। নেই নিরাপত্তাও। আপনারা একটু ছবি তুলে নিয়ে যান।’ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কৃষ্ণপদ মন্ডল জানান, ২০০৯ সালে ঘূর্ণিঝড় আয়লায় বিদ্যালয় ভবনের ব্যাপক ক্ষতি হয়। সিঁড়ি রুমের ছাদও ধসে পড়েছে। গোটা ভবনই এখন বিপজ্জনক। এখানে শতাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। শিক্ষক আছেন ৫জন। সবাই আতঙ্কে থাকেন। ২০১৩সালে ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হলেও এ পর্যন্ত নতুন ভবন অনুমোদন পায়নি। বাশ ও টিন দিয়ে একটি বিকল্প কক্ষ তৈরি করা হলেও সেখানে বসার মত কোন ব্যবস্থা নেই। মাঠেও গোটা বছরজুড়ে থাকে পানি।

বিদ্যালয়ের সভাপতি ইউপি সদস্য আরিফুল কবির বাচ্চু জানান, ভবনের দুরাবস্থার কারণে শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমে গেছে। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আনিসুর রহমান জানান, বিদ্যালয়টির ভবনের জন্য একাধিকবার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে। হয়তো নতুন ভবনের অনুমোদন পাওয়া যাবে।

"