মুকসুদপুরে সংঘর্ষে মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ভাঙচুর

প্রকাশ : ২৯ মে ২০২০, ০০:০০

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে গ্রামের দলাদলিতে পক্ষ না নেওয়ায় এক মুক্তিযোদ্ধার বাড়িসহ দুটি বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন। আহতরা মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার কাউনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় থম থমে অবস্থা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় মুকসুদপুর থানায় দুই পক্ষ থেকে দুটি অভিযোগ করা হয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধা ও সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত ওয়ারেন্ট অফিসার রেজাউল করিম শেখ বলেন, স্থানীয় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বহুগ্রাম ইউনিয়নের ইউপি মেম্বার মনোয়ার মিয়া ও জাফর মিয়ার মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিল।

করোনা পরিস্থিতির কারনে ঈদের আগে পরিবারসহ তিনি গ্রামের বাড়িতে আসেন। এরপর থেকে কাউনিয়া গ্রামের জাফর মিয়ার দলের লোকজন তাকে (রেজাউল করিম) তাদের দলে যোগ দিতে চাপ সৃষ্টি করতে থাকেন। কিন্তু তিনি গ্রামে দলাদলির মধ্যে জড়িত হতে অপরগতা প্রকাশ করায় তারা ক্ষিপ্ত হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জাফর মিয়ার লোকজন তার বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করে। এছাড়া গভীর রাত পর্যন্ত পরিবারসহ তাকে বাড়ির মধ্যে জিম্মি করে রাখে।

মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল করিমের মেয়ে সুমাইয়া সুলতানা মীম বলেন, জাফর মিয়ার লোকজন কেবল আমাদের বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করেনি। সারা রাত আমাদের জিম্মি করে রাখে।

কাউনিয়া গ্রামের জাফর শেখের সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, আমার সঙ্গে স্থানীয় মেম্বার মনোয়ার মিয়ার দ্বন্দ্ব রয়েছে। কিছুদিন আগে আমার বাড়িতে ওই মেম্বারের লোকজন হামলা করে। আমার লোকজন রেজাউল শেখ ও এবাদ শেখের বাড়িতে হামলা করেছে এটি সত্য নয়।

মুকসুদপুর থানার ওসি মীর্জা আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ ঘটনায় দুই পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়েছি। ওই এলাকার পরিবেশ এখন শান্ত রয়েছে।

 

"