কাউখালীতে ৩ মাস ধরে বন্ধ ইফার বেতন-ভাতা

প্রকাশ : ২০ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

কাউখালী (পিরোজপুর) প্রতিনিধি

পিরোজপুরের কাউখালীতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের (ইফা) ৬০ জন শিক্ষক-কর্মচারী তিন মাস ধরে বেতন-ভাতা না পেয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

জানা যায়, ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠার পর থেকে শিশুদের নৈতিক ও ধর্মীয় শিক্ষার জন্য মসজিদ-মন্দির ও মক্তবভিত্তিক শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করে। এইসব মসজিদ, মন্দির ও মক্তবের শিশুদের পাঠদানের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশন শিক্ষক নিয়োগ দেয়। কাউখালী উপজেলায় প্রায় ৬০ জন শিক্ষক শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাচ্ছেন। এরই মধ্যে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে মসজিদ মন্দির ও মক্তবভিত্তিক শিক্ষাকেন্দ্রের পাঁচ বছর মেয়াদি প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকরা ২০২০ সালের শিক্ষা কার্যক্রম বই উৎসবের মাধ্যমে চালিয়ে যাচ্ছেন। নতুন বছরের তিন মাস অতিবাহিত হলেও মসজিদ মন্দির ও মক্তবভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রমের প্রকল্প অনুমোদন না হওয়ায় ওই ৬০ শিক্ষক গত তিন মাস ধরে বেতন-ভাতা না পেয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

ভুক্তভোগী শিক্ষকরা জানান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মসজিদ মন্দির ও মক্তবভিত্তিক কেন্দ্রের শিক্ষক হিসেবে আমরা ১০-১৫ বছর ধরে শিক্ষকতা করে আসছি। আমাদের বেতন ভাতা প্রকল্পের মাধ্যমে দেওয়া হয়। উক্ত প্রকল্পে ধর্মমন্ত্রালয় পাঁচ বছরের জন্য অর্থ বরাদ্দ দেন। বর্তমানে প্রকল্পটির মেয়াদ শেষ হলেও নতুনভাবে কোনো অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়নি। ফলে আমরা কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীরা বেতন ভাতাদি না পেয়ে মানবতার জীবনযাবন করছি। আমাদের এই দুর্ভোগ লাগবেন জন্য প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করছি।

পিরোজপুর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক মো. সাদ উদ্দিন বলেন, পাঁচ বছর মেয়াদি মসজিদ মন্দির ও মক্তবভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রমের মেয়াদ শেষ হয়েছে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে। শিক্ষকরা নতুন বছরের শুরুতেই কাউখালীসহ সারা দেশে কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীরা গত তিন মাস ধরে বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। প্রকল্পটি পাস হলে সকলেই বকেয়া বেতন-ভাতাদি পাবেন।

 

"