বাবুগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়ি থেকে ১৮৩ বস্তা চাল উদ্ধার

প্রকাশ : ১৭ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০

বাবুগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় গত বুধবার রাতভর অভিযানে কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নূরে আলম ব্যাপারীর বাড়ি থেকে সরকারি ত্রাণের ১৮৩ বস্তা চাল উদ্ধার করেছে র‌্যাব। এছাড়াও জেলেদের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচির চাল মাপে কম দেওয়ার অভিযোগে একই ইউনিয়নের দুই মেম্বারকে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদ- দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দ-িতরা হলো কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য জাকির হোসেন এবং ৮নং ওয়ার্ড সদস্য রোকনুজ্জামান রোকন।

বাবুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুজিত হাওলাদার গত বুধবার সন্ধ্যায় এ দ-াদেশ দেন। বিকালে কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদে জেলেদের খাদ্য সহায়তা কর্মসূচির চাল বিতরণকালে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর একটি অভিযানিক দল তাদের আটক করেন। এ সময় আটকদের স্বীকারোক্তি ও কার্ডধারীদের অভিযোগের ভিত্তিতে কেদারপুর ইউপি চেয়ারম্যান নূরে আলম ব্যাপারীর স্টিমারঘাটের বাড়িতে রাতভর অভিযান চালিয়ে ১৮৩ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার করে র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। তবে র‌্যাবের অভিযান টের পেয়ে আগেই আত্মগোপন করেন অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান নূরে আলম ব্যাপারী। এ ঘটনায় ত্রাণের চাল আত্মসাতের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বাবুগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করে র‌্যাব। র‌্যাব-৮ এর সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মকুর চাকমা বলেন, ‘প্রথম দফায় ওজনে চাল কম দেওয়ার অভিযোগ পেয়ে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় দুই মেম্বারকে হাতেনাতে আটক করা হয়। তারা জেলেদের জন্য নির্ধারিত জনপ্রতি ৪০ কেজি চালের পরিবর্তে ৩০ কেজি করে দিচ্ছিলেন। পরে দুই মেম্বারের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ইউপি চেয়ারম্যান নূরে আলম ব্যাপারীর মালিকানাধীন স্টিমারঘাটের বাড়িতে থেকে ১৮৩ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার করা হয়।

 

"