আমতলীর ঘটখালী-২ আশ্রয়ণ প্রকল্প

জরাজীর্ণ আশ্রয়ণের ঘর গভীর নকলকূপ নষ্ট

প্রকাশ : ২৩ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি

‘আশ্রয়ণের অধিকার শেখ হাসিনার উপহার’Ñ স্লোগানে সরকারি উদ্যোগে ২০১২ সালে বরগুনার আমতলী উপজেলার চাওড়া ইউনিয়নের ঘটখালী গ্রামে ঘটখালী-২ আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় ১৬টি ব্যারাক নির্মাণ করা হয়। পরে তা ৮০টি ভূমিহীন পরিবারের কাছে হস্তান্তরের করা হয়। বর্তমানে ওই বাড়িগুলোতে বসবাসরতরা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তাদের দুরবস্থার যেন শেষ নেই।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই ঘরগুলো নির্মাণের পর অবস্থা অনেকটাই খারাপ। ছাউনির টিন ফুটো হয়ে বৃষ্টির পানি পড়ছে। অনেক টিনে মরিচা ধরে খসে পড়ছে। বসবাসরতরা চালের ওপর পলিথিন দিয়ে কোনো রকম বৃষ্টির পানি থামানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হচ্ছেন। একাধিক ভুক্তভোগীরা জানান, এ আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরগুলো এখন বসবাসের উপযোগী নয়। বৃষ্টি এলেই ঘরে পানি পড়ে বিছানাপত্র ভিজে যায়। এছাড়াও রয়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় নিরাপদ পানির সঙ্কট, নাজুক স্যানিটেশন ব্যবস্থা, যোগাযোগ ব্যবস্থারও বেহাল অবস্থা। এলাকায় বিদ্যুতের খুঁটি এনে রাখা হয়েছে কয়েক মাস আম আগেই কিন্তু এখনো সংযোগ স্থাপন করা হয়নি। এসব সমস্যা সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিদের কাছে বারবার গেলেও মিলছে না কোনো প্রতিকার।

আশ্রয়ন প্রকল্পের অধিবাসীরা আরো জানান, ব্যারাকের মধ্যে ৮টি গভীর নলকুপ ছিল তার মধ্যে ৫টি নষ্ট হয়ে গেছে। অধিবাসীদের চলাচলের পথগুলো দিয়ে তারা এখন চলতে পারেনা। অধিবাসীরা গভীর নলকুপ স্থাপন, কবরস্থান, পুকুরগুলো খননের দাবী জানিয়েছেন। আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরা পারভীন বলেন, আশ্রায়ণ প্রকল্পটির সমস্যা চিহ্নিত করে উপজেলাপ্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার মাধ্যমে মন্ত্রণালয় পাঠানো হয়েছে। এবং পানির সমস্যার জন্য একটি টিউবয়েল বসানোর কাজ প্রক্রিয়াধীন।

"