উল্লাপাড়ায় আমন চাষে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়ানোর প্রত্যাশা

প্রকাশ : ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলায় আমন ধান কাটা শুরু হয়েছে। ফলনও মিলছে আশানুরূপ। এতে চলতি বছরে আমনের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাওয়ার প্রত্যাশা করছেন কৃষকরা।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উল্লাপাড়ায় চলতি মৌসুমে ৯ হাজার ৮০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের আবাদ হয়েছে। এরমধ্যে রোপা আমন ৮ হাজার ৪৩০ হেক্টর ও ৬৫০ হেক্টর জমিতে বোনা আমন ধানের আবাদ হয়েছে। জানা যায়, ৪ হাজার ৭১৫ হেক্টর জমিতে বোনা আমন ধান চাষ করা হলেও বন্যাসহ বিভিন্ন কারণে ৪ হাজার ১৫ হেক্টর জমির বোনা আমন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদিকে, গত এক সপ্তাহ ধরে আগাম করে লাগানো রোপা আমন ধান কাটা শুরু হয়েছে। এরআগে বোনা আমন ধান কাটা শুরু হয়। উপজেলার রামকৃষ্ণপুর, সলঙ্গা, বড়হর, হাটিকুমরুল ইউনিয়ন এলাকায় সবচেয়ে বেশি পরিমান জমিতে রোপা আমন আবাদ হয়েছে। খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, এক বিঘা জমিতে ১৫ থেকে ১৬ মণ ধানের ফলন মিলছে। কৃষক আবু বক্কার জানান, তার দেড় বিঘা জমির ধান গত দু’দিন আগে কেটে ঘরে তুলেছেন। বিঘা প্রতি সাড়ে ১৫ মণ হারে ফলন হয়েছে। স্থানীয় হাট বাজারগুলোতে নতুন উঠা রোপা আমন ধান মণ প্রতি ৭৩০ থেকে ৭৭০ টাকা দরে কেনা বেচা হচ্ছে বলে জানা যায়। গত কয়েকদিনে ধানের দাম কিছুটা বেড়েছে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার আসাদ বিন খলিল রাহাত প্রতিদিনের সংবাদকে জানান, এবারের মৌসুমে উল্লাপাড়ায় রোপা আমন ধানের ফলন বেশ ভালো। স্থানীয় কৃষকরা বিভিন্ন উন্নত জাতের রোপা আমন ধানের আবাদ করেছে। রোপা আমন ধানের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা প্রায় সাড়ে ৩০ হাজার মেট্রিক টন। এ বছর এ লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক নিয়ামুল হক জানান, এবার কৃষকদের কাছ থেকে আমন ধান ও চাল কেনা হবে। তবে এখনো ক্রয় লক্ষ্যমাত্রা এবং কবে নাগাদ থেকে তা শুরু হবে এ বিষয়ে তার বিভাগ থেকে কোনো চিঠি আসেনি বলে জানান তিনি।

"