আমতলীতে শিক্ষার্থীদের টাকায় ভূরিভোজ!

প্রকাশ : ০৯ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি

বরগুনার আমতলীর একে হাইস্কুল সংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সমাপনী পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানের নামে প্রত্যেকের কাছ থেকে এক হাজার টাকা করে চাঁদা নেয় কতৃপক্ষ। সেই টাকায় প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান সিকদারের নেতৃত্বে বিদ্যালয়ে ভুড়িভোজ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে অভিভাবকদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। এর আগেও ওই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে চাঁদা উত্তোলন করে ভুড়িভোজ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, আমতলী একে পাইলট হাইস্কুল সংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে এ বছর ১০২ জন শিক্ষার্থী সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নিবে। শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে এক হাজার টাকা করে চাঁদা নেয় স্কুল কর্তৃপক্ষ। পরে সেই টাকা দিয়ে ভুড়িভোজের আয়োজন করা হয়। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও সাংবাদিকসহ দুই শতাধিক লোককে ভুড়িভোজ করানো হয়।

বিদ্যালয়ের কয়েকজন সহকারি শিক্ষক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, প্রধান শিক্ষক তার ইচ্ছানুযায়ী পরীক্ষার্থীদের নিকট থেকে জোর করে টাকা উত্তোলন করেছেন। এ নিয়ে অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভ রয়েছে।

প্রধান শিক্ষক আব্দুল মান্নান সিকদার ভুড়িভোজের কথা স্বীকার করে বলেন, পরীক্ষার্থীদের অভিভাবকরা বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন এবং তারাই খাবারের ব্যবস্থা করেছেন। টাকা উত্তোলনের বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

উপজেলা সহকারি শিক্ষা অফিসার (সদর ক্লাষ্টার) ফাতিমা বেগম বলেন, শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা উত্তোলন ও খাবারের বিষয়টি আমার জানা নেই। শিক্ষার্থীদের নিকট থেকে এক হাজার করে টাকা উত্তোলন করা অন্যায়। বিষয়টি খোঁজ নিয়ে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইউএনও মনিরা পারভীন মুঠোফোনে বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। এ বিষয়ে ক্ষতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

"