আখাউড়ায় শ্রমিক লীগের অফিস থেকে ১৬ জুয়াড়ি আটক

প্রকাশ : ১১ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়া উপজেলার রেলওয়ে শ্রমিক লীগ ক্লাবে অভিযান চালিয়ে ১৬ জুয়াড়িকে আটক করেছে পুলিশ। গত বুধবার রাতে রেলওয়ে কলোনি এলাকার ওই ক্লাবে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটকরা হলেন- আব্দুর রহমান (৪০), রইছ মিয়া (৪০), শেখ কাজল (৩৫), হুমায়ুন কবির (৩২), নিরমল দাস (৩২) শাহ আলম (৫০), কালু মিয়া (৫০), রফিকুল ইসলাম (৫৫), সজিব দাস (৩০), কাউছার মিয়া (৫০), নজরুল ইসলাম (৫৯), জাহাঙ্গীর খলিফা (৫০), খলিলুর রহমান (৫১), আইয়ুব মিয়া (৫৫), হোসেন খলিফা (৫০) এবং অরুন চন্দ্র দাস (৪২)। পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার রাতে আখাউড়া রেলওয়ে থানার নিকটস্থ রেলওয়ে শ্রমিকলীগ অফিসে জুয়া বিরোধী অভিযান চালায় পুলিশ। এ সময় নগদ ২৪ হাজার ৪১০ টাকা ও ১৪টি মোবাইল সেট এবং জুয়া খেলার সামগ্রীসহ ১৬ জুয়াড়িকে আটক করা হয়। আটকদের মধ্যে রয়েছে রেলওয়ের কর্মচারী শ্রমিক নেতাও রয়েছেন। পুলিশ বলছে, তাদেরকে জুয়া খেলার সময় হাতেনাতে আটক করেছে।

স্থানীয়রা জানায়, আখাউড়ায় রেলওয়ে থানা সংলগ্ন রেলওয়ে ক্লাব (লাল হোসেন ইনষ্টিটিউট) ও রেলওয়ে শ্রমিক লীগের অফিস। প্রতিদিন সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত তাস খেলার নামে চলত জমজমাট জুয়ার আসর। রেলওয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক দলের কর্মী এবং রেলওয়ে কলোনী ও পাশর্^বর্তী এলাকার প্রভাবশালীরা এখানে জুয়া খেলতে আসে। রেলওয়ে ক্লাবের দু’একজন নেতার মদদে স্থানীয় প্রভাবশালীরা চালায় এই অপকর্ম। থানা থেকে মাত্র ২০গজ দূরে এসব অনৈতিক কাজকর্ম চললেও রহস্যজনক কারণে এতদিন পুলিশ নিরব ছিল। রেলওয়ে পূর্ব কলোনীর কয়েকটি বাসায় গড়ে উঠেছে মাদকের আস্তানা। এসব বাসায় মাদক কেনাবেচনা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। কিন্তু প্রভাবশালীদের ভয়ে কেউ কিছু বলতে পারছে না। স্থানীয় এক প্রভাবশালী জনপ্রতিনিধির চাচাতো ভাই শ্রমিকলীগ নেতা লাকসু খলিফা বাইপাস এলাকায় রেলওয়ের একটি বাসা দখল করে চালাচ্ছেন নানা অপকর্ম। সেখানে মদ, গাজা, ইয়াবা বেচাকেনা ও জুয়ার আসর চলে রাতভর।

আখাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুল আমিন জানান, উপজেলায় জুয়া বিরোধী বিশেষ অভিযান চলছে।

 

"