সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া

সর্বোচ্চ ইজারা মূল্যে ডাকা হাটটি বসে ভাড়া জায়গায়

প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

উল্লাপাড়া (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার মধ্যে সব থেকে বেশি ইজারা মূল্যের হলো বোয়ালিয়া হাট। পশুহাটের জন্য নাম ডাক গোটা উত্তরাঞ্চলসহ অন্যান্য এলাকায়। অথচ বোয়ালিয়া পশুহাটের নিজস্ব কোনো জায়গা নেই। ভাড়া জায়গায় বসছে পশুহাট। এভাবে চলছে বছরের পর বছর।

জানা গেছে, উল্লাপাড়ার বোয়ালিয়া হাট ও বাজার স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন থেকে ইজারা দেওয়া হয়। এটি পুরোনো হাট-বাজার। প্রায় দুই যুগ ধরে পশুহাট বসে এখানে। সপ্তাহের দুই দিন বৃহস্পতিবার ও রোববার হাট বসে। এর মধ্যে একদিন রোববার পশুহাট বসে। বোয়ালিয়া মূল হাট ও পশুহাট বসানোর কোনো নিজস্ব জায়গা নেই। এ হাট ইজারা নেওয়ার পর মূল হাটের আশপাশের জায়গা ভাড়া নিয়ে বসানো হয় পশুহাট। ইজারা নেওয়া ব্যক্তিদের পছন্দ ও সুবিধামতো জায়গা ভাড়া নিয়ে সেখানে পশুহাটটি লাগানো হয়ে থাকে। এ কারণে ইজারা গ্রহীতা বদল হলে পশুহাটের জায়গাও বদল হয়। বিগত সময়ে একাধিকবার ইজারা গ্রহীতাদের পছন্দে পশুহাটের জায়গা বদল হয়েছে। গোটা উত্তরাঞ্চলসহ ঢাকা, সিলেট, চট্টগ্রাম এলাকায় বোয়ালিয়া পশুহাটের নাম ডাক রয়েছে। এ বছর বোয়ালিয়া হাটের ইজারা মূল্য হয়েছে প্রায় ২ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। উল্লাপাড়া উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ইজারা মূল্যের হলো এ হাট।

এই হাটের ইজারা গ্রহীতা অংশীদারদের একজন আবদুস ছোবাহান প্রতিদিনের সংবাদকে জানান, তারা হাটটি ইজারা নেওয়ার পর প্রায় সাড়ে আট বিঘা আবাদি জমি বার্ষিক চুক্তিতে ভাড়া নিয়েছেন। নিজেদের দায়িত্বে এ জায়গা ভাড়া নিয়ে সেখানে পশু হাটটি বসানো হচ্ছে। তিনি আরো জানান, মূল হাটটিতে পশুহাট লাগানোর মতো কোনো জায়গা নেই। জায়গা ভাড়া নেওয়ার কারণে হাটটির পেছনে তাদের বাড়তি খরচ হচ্ছে বলে জানান। এদিকে একাধিক দিন হাটবারে দেখা গেছে, বোয়ালিয়ায় নগরবাড়ী মহাসড়কের দুই ধারে বহু সংখ্যক পশুবাহী ট্রাক ও নসিমন রাখা হয়। এছাড়া সলঙ্গা আঞ্চলিক সড়কের ধারেও পশুবাহী বিভিন্ন বাহন রাখা হয়। এ কারণে মহাসড়ক ও আঞ্চলিক সড়কে হাটবারে মাঝেমধ্যেই যানজট বেধে যায়। ইউএনও আরিফুজ্জামান জানান, উপজেলা প্রশাসন থেকে বোয়ালিয়া পশুহাটের জন্য নিজস্ব জায়গা কেনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ৩০ থেকে ৩৫ শতক জায়গা কেনা হবে।

"