রাণীনগরে আখখেতে পোকা ও লাল পচার আক্রমণ

ওষুধ ছিটিয়েও কাজ হচ্ছে না, কৃষি অফিসের অসহযোগিতার অভিযোগ

প্রকাশ : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় লাল পঁচা রোগ ও পোকার আক্রমণে মরে যাচ্ছে আখ। ওষুধ ছিটিয়েও কাজ না হওয়ায় দিশাহারা হয়ে পড়েছেন কৃষক। তবে কৃষি অফিসের অসহযোগিতার অভিযোগ করছেন তারা।

উপজেলার চকমুনু গ্রামের প্রায় শতাধিক বিঘা জমিতে আখ চাষ করা হয়েছে। শুরুতেই আখের দাম ভালো থাকায় বেশ লাভবান হবেন এমন আশায় ছিলেন চাষিরা। কিন্তু ১০ থেকে ১৫ দিন আগে খেতে ব্যাপকভাবে পোকার আক্রমণ দেখা দেয়, পাশাপাশি জেঁকে বসে লাল পচা রোগ। এ দিকে আখ রক্ষায় বিভিন্ন কোম্পানির ওষুধ প্রয়োগ করেও কোনো কাজ হচ্ছে না বলে জানান কৃষকরা। তারা বলছেন, সামান্য লাল বর্ণ দেখার পরই চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যেই পুরো জমি আক্রান্ত হয়ে মরে যাচ্ছে।

চকমুনু গ্রামের আখচাষি খন্দকার আবদুস সালাম জানান, প্রায় তিন বিঘা জমিতে আখের চাষ করেছি। এর মধ্যে অধিকাংশ জমির আখ পোকা ও লাল বর্ণ রোগে মরে গেছে। একই গ্রামের চাষি আবুল কাশেম সরদার জানান, প্রায় আড়াই বিঘা জমিতে আখ চাষ করেছি। রাতারাতি এসব জমিতে পোকার আক্রমণ ও লাল হয়ে মরে যাচ্ছে। বিভিন্ন কীটনাশক ছিটিয়েও কোনো লাভ হচ্ছে না।

তবে হঠাৎ করে এমন রোগের আক্রমণ দেখা দিলেও কৃষি অফিস থেকে তেমন কোনো সহযোগিতা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেছেন কৃষকরা। জানতে চাইলে উপজেরা কৃষি কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম এ ব্যাপারে প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, এবার রানীনগরে ১০ থেকে ১২ হেক্টর জমিতে আখ চাষ হয়েছে। বৃষ্টির কারণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হওয়ায় এবং বীজবাহিত রোগে লাল পচা রোগ দেখা দিয়েছে। যেহেতু আখকাটা শুরু হয়েছে তাই খুব বেশি ক্ষতি হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, যেসব জমি আক্রান্ত হয়েছে সেগুলো দ্রুত কেটে সবজি চাষের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

 

"