এসি ল্যান্ডের কাছে তথ্য চাওয়ায় সাংবাদিককে হেনস্তা

প্রকাশ : ০৭ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০

রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি

সংবাদ পরিবেশনে তথ্য চাওয়ায় ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সোহাগ চন্দ্র সাহার হাতে স্থানীয় দুই সাংবাদিককে হেনস্তার অভিযোগ উঠেছে। হেনস্তার শিকার সাংবাদিক দুজন হলেন উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক ভোরের কাগজের উপজেলা প্রতিনিধি মোবারক আলী এবং সাবেক সম্পাদক দৈনিক করতোয়ার উপজেলা প্রতিনিধি মো. বিপ্লব। ঘটনাটি গত সোমবার বিকেলে উপজেলা সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কার্যালয়ে ঘটে।

সাংবাদিক মোবারক জানান, সোমবার বিকালে এসিল্যান্ডের ব্যবহৃত সরকারী পুল গাড়ী নিয়ে রাণীশংকৈল উপজেলা থেকে জেলা সদরে প্রতিদিন যাওয়া আসার নিয়ম আছে কিনা জানতে চাওয়া হয়। এছাড়া অতিরিক্ত গাড়ী চলাচলে জ্বালানী তেলের খরচ কোন ফান্ড থেকে ব্যয় হয় এ বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি অফিসে আসতে বলেন। সে অনুযায়ী সাংবাদিক মোবারক স্থানীয় আরেক সাংবাদিক বিপ্লবকে সঙ্গে নিয়ে এসিল্যান্ডের অফিসে যান।

এ সময় সাংবাদিক মোবারক আবারও একই প্রশ্ন করলে এসিল্যান্ড সোহাগ চন্দ্র সাহা সাংবাদিক মোবারকের পরিচয় পত্র দেখতে চান। পরিচয় পত্র দেখালে এসিল্যান্ড এটি হাতে নিয়ে বলেন আপনার কার্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে এক মাস অতিবাহিত হয়েছে। আপনি আগে মেয়াদপূর্ণ পরিচয়পত্র নিয়ে আসেন তারপরে আপনাকে তথ্য দিবো। পরে সাংবাদিক মোবারক সঙ্গীয় সাংবাদিক বিপ্লবকে নিয়ে এসিল্যান্ডের কার্যালয় থেকে বের হয়ে মোটরসাইকেলে উঠলে এসিল্যান্ড মোটরসাইকেল আটক করে সাংবাদিক মোবারককে গাড়ীর কাগজপত্র দেখাতে বলেন। এ সময় সাংবাদিক মোবারক বলেন, আমার তো গাড়ী নেই। সাংবাদিক বিপ্লব গাড়ীর বৈধ কাগজ দেখিয়ে সেখান থেকে মোবারককে নিয়ে চলে আসেন।

পরে ওই দিন সন্ধায় প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে জরুরী সভা ডেকে এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ জানিয়ে সম্মিলিত ভাবে বিষয়টি গুরত্ব সহকারে দেখার সিদ্ধান্ত হয়।

এ বিষয়ে এসিল্যান্ডের সঙ্গে ওই দিন রাতে প্রেস ক্লাবের আহবায়ক আনিসুর রহমান বাকী মুঠোফোনে কথা বললে, তিনি মঙ্গলবার তার অফিসে বসে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার আহবান জানান।

এ ব্যাপারে এডিসি (রাজস্ব) আমিনুল ইসলাম বলেন, এসিল্যান্ডের ব্যবহৃত জেলা প্রশাসকের পুল গাড়ীটি তিনি নিজ স্টেশন ছাড়া অন্য স্টেশনে অফিসের বাইরে কাজে নিয়ে যেতে পারেন না এটা বে আইনি। তবে নিয়ে গেলে অব্যশই জেলা প্রশাসকের অনুমিত অথবা সরকারী কোন কাজে ব্যবহার করতে হবে।

এদিকে দুই সাংবাদিককে হেনস্তা করায় এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আহবান জানিয়ে নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছেন জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি মুনসুর আলী ও সম্পাদক লুৎফর রহমান মিঠু।

 

 

"