গৌরীপুরে আগুনে পুড়ল কৃষকের ঈদের স্বপ্ন

প্রকাশ : ০৭ জুলাই ২০১৯, ০০:০০

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

অনেক কষ্টে ৩১ হাজার টাকা যোগাড় করে একটি ষাঁড় বাছুর কিনেছিলেন কৃষক আব্দুস ছাত্তার। ৭ মাস লালন-পালন করে ষাঁড়টিকে হৃদপুষ্ট করে তোলেন। স্বপ্ন ছিলো আসছে ঈদুল আযহায় ষাঁড়টিকে বিক্রি করে লাভের মুখ দেখবেন। কিন্তু স্বপ্ন পূরণের আগেই আগুন পুড়ে মরলো প্রিয় ষাঁড়টি। গত শুক্রবার রাতে মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার সহনাটি ইউনিয়নের পেচাঙ্গিয়া গ্রামে। আব্দুস ছাত্তার ওই গ্রামের মিরাজ আলীর ছেলে।

স্থানিয় সূত্রে জানা গেছে, ৭ মাস আগে ৩১ হাজার টাকায় একটি ষাঁড় বাছুর কিনেন ছাত্তার। প্রতিমাসে ষাঁড়ের জন্য ভুষি, খৈল ও অন্যান্য খাবার বাবদ তার ২ হাজার টাকার বেশি খরচ হতো। কিছুদিন আগে ষাঁড়টির ৮০ হাজার টাকা দাম হয়। কিন্তু ঈদের মধ্যে দাম বেশি হতে পারে এই আশায় ছাত্তার ষাঁড়টি বিক্রি করেননি। শুক্রবার দিবাগত রাতে ষাঁড়টিকে খাবার খাইয়ে গোয়াল ঘরে বেঁেধ ঘুমাতে যান ছাত্তার। শনিবার ভোরে ঘুম থেকে উঠে দেখেন গোয়াল ঘরে আগুন জ্বলছে। পরে তার ডাক-চিৎকার শোনে পরিবার ও স্থানীয়রা এসে পানি ঢেলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও আগুনে পুড়ে মারা যায় ষাঁড়টি। আগুনে ছাই হয় গোয়াল ঘরটিও।

আব্দুস ছাত্তার বলেন, নিজের সন্তানের মতো লালন-পালন করে ষাড়টিকে বড় করেছিলাম। স্বপ্ন ছিলো কুরবানির ঈদের বিক্রি করবো। কিন্ত আগুনে সেই স্বপ্ন পুড়ে ছারখার হলো। অভাবের মধ্যে আর নতুন একটা ষাঁড় কেনার সামর্থ্যও আমার নেই।

ছাত্তারের স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন বলেন, ষাঁড় ও গোয়াল ঘর পুড়ে ১ লাখ টাকার ওপরে ক্ষতি হয়েছে।

 

"