গাইবান্ধায় গৃহবধূর গায়ে আগুন দেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশ : ১৫ জুন ২০১৯, ০০:০০

গাইবান্ধা প্রতিনিধি

গাইবান্ধা সদর উপজেলার মোল্লারচর গ্রামের হাবিবুর রহমানের মেয়ে কুলসুম বেগমের (২২) গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে তার স্বামী আমিনুল ইসলাম। এতে তার শরীরের নিম্নাংশ পুড়ে গেছে। গত বৃহস্পতিবার রাত দেড়টার দিকে চিকিৎসার জন্য কুলসুম বেগমকে গাইবান্ধা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দুই বছর আগে কুড়িগ্রাম জেলার রাজিবপুর উপজেলার মধ্যচরের আমিনুল ইসলামের সঙ্গে কুলসুম বেগমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী আমিনুল ইসলাম ও তার পরিবারের লোকজন যৌতুকের জন্য প্রায়ই কুলসুমকে মারধর করতো। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার গ্রাম্য সালিস হয়। গত ১০ জুন তৃতীয় দফা সালিসের মাধ্যমে আবারও গৃহবধূ কুলসুম বেগমকে শ্বশুরবাড়িতে নিয়ে যায় তার স্বামীর পবিবারের লোকজন। এরপর ১২ জুন রাতে কুলসুমের স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন মিলে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেয়। এ সময় কুলসুমের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে বাড়ির সবাই পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা কুলসুমের বাবার বাড়িতে খবর দিলে বৃহস্পতিবার তাকে উদ্ধার করে রাতে গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় কুড়িগ্রামের রাজিবপুর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। গাইবান্ধা সদর আধুনিক হাসপাতালের আরএমও ডা. শাহীনুল ইসলাম জানান, কুলসুমের উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

 

"