দুই স্থানে বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু

প্রকাশ : ২৫ মে ২০১৯, ০০:০০

প্রতিদিনের সংবাদ ডেস্ক

মাদারীপুরের রাজৈরে বজ্রপাতে শুকুর আলী (৪৮) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে হবিগঞ্জে চুনারুঘাটে যুবতী এবং নবীগঞ্জে কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

মাদরীপুর : মাদারীপুরের রাজৈরে বজ্রপাতে শুকুর আলী (৪৮) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে উপজেলার পশ্চিম সরমঙ্গল গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। সে ওই এলাকার মৃত সুলতান বেপারীর ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, বৃহস্পতিবার বিকালে শুকুর আলী বাড়ীর পাশে একটি পাট ক্ষেত পরিচর্যা করছিল। এ সময় হালকা বৃষ্টি হচ্ছিল। এসময় বজ্রপাতে শুকুর আলী ঘটনা স্থলেই ঢলে পড়ে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে রাজৈর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শুকুর আলীকে মৃত ঘোষণা করেন।

হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে বজ্রপাতে সীমা উরাও (২৬) নামে এক যুবতীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে উপজেলার আমু চা-বাগানের পার্শ্ববর্তী এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। নিহত সীমা উরাও ওই বাগানের শ্রমিক প্রদীপ উরাওয়ের কন্যা।

চুনারুঘাট থানার (ওসি) কেএম আজমিরুজ্জামান জানান, সীমা উরাও নামে ওই চা শ্রমিক কন্যা আমু বাগান থেকে পার্শ্ববতী ঘনশ্যামপুর গ্রামে কাজ করতে যায়। কাজের এক পর্যায়ে ঝড়ো হাওয়ার সাথে বজ্রপাত শুরু হলে সে বাড়ির উদ্যোশ্যে রওয়ানা হয়। পথিমধ্যে সে বজ্রপাতের কবলে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

অন্যদিকে নবীগঞ্জ উপজেলার গুজাখাইড় গ্রামে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে সিজিল মিয়া (৪৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে গুজাখাইড় গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। সে ওই গ্রামের মৃত আব্দুল জলিলের পুত্র।

নবীগঞ্জ থানার (ওসি) ইকবাল হোসেন জানান, সকালে বৃষ্টির সময় বাড়ির পার্শ্ববর্তী একটি হাওরে মাছ ধরতে যান গুজাখাইড় গ্রামে কৃষক সিজিল মিয়া। এসময় বজ্রাঘাত হলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতাউল গনি ওসমানী বলেন, বজ্রপাতে নিহত কৃষকের পরিবারকে সরকারি ভাবে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে।

 

"