নড়াইলে রোহিঙ্গা আতঙ্ক!

প্রকাশ : ২৩ মে ২০১৯, ০০:০০

নড়াইল প্রতিনিধি

নড়াইল সদর উপজেলায় চলছে রোহিঙ্গা আতঙ্ক। শিশুদের মাথা কেটে নিয়ে যাওয়ার গুজবে এলাকায় আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। এতে বাড়ি থেকে বের হতে ভয় পাচ্ছে শিশুরা। বিভিন্ন এলাকায় মসজিদের মাইকে রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে বলা হচ্ছে। ফলে এলাকায় কাউকে সন্দেহজনক হলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সঠিক জবাব দিতে না পারলে মারধর করে পুলিশে খবর দেওয়া হচ্ছে।

চাঁচুড়ী ইউনিয়নের আমবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা আব্বাস মুন্সী বলেন, গত শুক্রবার বেলা ১১টার সময় স্থানীয় আমবাড়ি মসজিদ থেকে ঘোষণা করা হয় রোহিঙ্গারা শিশুদের ধরে নিয়ে যাচ্ছে। এরপর থেকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এদিকে গত ১৫ মে সদরের মুলিয়া বাজার থেকে রোহিঙ্গা সন্দেহে জসিম নামের এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে এলাকাবাসী। পরে সদর থানার ওসি ইলিয়াছ হোসেন জানান, সে রহিঙ্গা নয়, মানসিক ভারসাম্যহীন। গত রোববার রাত ১০টার দিকে কালিয়া-নড়াইল সড়কে আখলিয়া বাজার থেকে ষাটোর্ধ মানসিক ভারসাম্যহীন আরেক ব্যক্তিকে এলাকাবাসী ধরে মারধর করে স্থানীয় ক্লাবে আটকে রাখে। পরদিন তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। সদরের টাবরা গ্রামের বাসিন্দা নিউটন মল্লিক বলেন, গ্রামে গুজব ছড়ানো হচ্ছে পদ্মা সেতু নির্মাণ করতে ৮০টি মানুষের মাথার প্রয়োজন। পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন পিপিএম (বার) বলেন, রোহিঙ্গা আতঙ্ক সম্পূর্ণই গুজব। এ গুজবে কান না দিতে জনগণকে অনুরোধ করেন তিনি।

 

"