ইটভাটার গ্যাসে ঝলসে গেছে ৬ হেক্টর জমির ধান

প্রকাশ : ১৮ মে ২০১৯, ০০:০০

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে তিন এলাকায় ইটভাটার বিষাক্ত গ্যাসে জলসে গেছে প্রায় ৬ হেক্টর জমির বোরো ধান। এমনকি নষ্ট হয়ে গেছে মৌসুমী ফলসহ গাছপালা। এর ক্ষতিপূরণ ও ভাটা মালিকদের শাস্তির দাবিতে অসহায় উপজেলার দপ্তরে দপ্তরে ঘুরছেন অর্ধশত কৃষক। এই সব ভাটা অবৈধভাবে তৈরি বলে অভিযোগ আছে। এ বিষয়ে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নজরধারী নেই বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

উপজেলা কৃষি অফিস ও ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার বোডঘর, হিজলতলী, বলিয়াদী, মরকাবহ, কুুতুবদিয়া, মেদীআশুলাই, আষাড়িয়াবাড়ি, বড়ইবাড়িসহ বিভিন্ন এলাকায় দুই ফসলি জমির উপর গড়ে উঠেছে প্রায় ৩৫-৪০টি অবৈধ ইটভাটা। এর মধ্যে উপজেলার আটাবহ ইউনিয়নের দরবাড়িয়া এলাকায় এনএমবি নামের একটি ইটভাটার বিষাক্ত গ্যাসে প্রায় ২ হেক্টর এবং বেগুনবাড়ি এলাকায় এসবিসি ও এমবিসি নামে দুটি ইটভাটায় বিষাক্ত গ্যাসে ৪ হেক্টর জমির বোরো ধান জলসে গেছে। এতে প্রায় অর্ধশত কৃষকের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এখন ক্ষতিপুরন ও কঠোর শাস্তির আশায় কৃষি দপ্তরসহ বিভিন্ন দপ্তরে ঘুরে বেড়াচ্ছে কৃষকরা।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক সামসুল হক, হাজিরা বেগম, শুকুর আলী, ওসমান মিয়া, আব্দুল কাদের অভিযোগ করে বলেন, ইটভাটা বন্ধের পর ১৫ দিন পানি দিয়ে রেখে পরে তা খুলে দিতে হয়। কিন্তু ওই তিনটি ইটভাটায় দুইদিনের মাথায় বিষাক্ত গ্যাস ছেড়ে দিয়েছে ইটভাটা কর্তৃপক্ষ। এই বিষাক্ত গ্যাসে প্রায় ৬ হেক্টর বোরো ধানক্ষেত জলসে গেছে। ফলে চাল ধরেনি ও চিটা হয়েছে। এছাড়া ওই গ্যাসে মৌসুমী ফসল, গাছপালাসহ বিভিন্ন শস্যাদি জলসে গেছে। ইটভাটার মালিকরা প্রভাবশালী হওয়ায় কয়েকজনকে ক্ষতিপুরণ দিলেও বেশির ভাগ কৃষককে ক্ষতিপুরণ দেওয়া হয়নি।

বেগুনবাড়ি এলাকার এসবিসি ইটভাটার ম্যানেজার সোহেল বলেন, গ্যাসের কারণে ধানক্ষেত জলসে যেসব কৃষকের ক্ষতি হয়েছে, আমরা সেসব কৃষকদের ক্ষতিপুরণ দিয়েছি। যদি কেউ না পেয়ে থাকে তারা আমাদের সঙ্গে যোগযোগ করলে তাদের ক্ষতিপুরণ দিবো। দরবাড়িয়া এলাকার এনবিএম ইটভাটার মালিক ওবায়দুল জানান, ইটভাটার বিষাক্ত গ্যাসের কারণে বোরো ধানের ক্ষতি হয়নি। ওই ধান ক্ষেতে পোঁকার কারণে ক্ষতি হয়েছে।

কালিয়াকৈর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আশীষ কুমার কর জানান, পানি দিয়ে ১৫ দিন রাখার পর ইটভাটার গ্যাস ছাড়ার কথা থাকলেও তারা ২-৩ দিনে ছেড়ে দিয়েছে। ফলে বিষাক্ত গ্যাসে ধানক্ষেতের ক্ষতি হয়েছে। এ বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে।

 

"