প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা তবুও নেই ফুট ওভারব্রিজ

প্রকাশ : ১৬ মে ২০১৯, ০০:০০

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) সংলগ্ন ব্যস্ততম ঘোনাপাড়ার চৌরাস্তার সংযোগস্থলে নেই ফুট ওভার ব্রিজ। এর দুই কিলোমিটারের মধ্যে সাতটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ও চিকিৎসা কেন্দ্র অবস্থিত। ফুট ওভার ব্রিজের অভাবে প্রতিনিয়তই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পার হতে হচ্ছেন পথচারী। এতে প্রায়ই ঘটছে দূর্ঘটনা এবং প্রাণহানি। শুধু ২০১৮ সালেই সংযোগস্থলে দূর্ঘটনায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে গোপালগঞ্জ সদর থানা। ঘোনাপাড়ার চৌরাস্তার সংযোগস্থলে দুই কিলোমিটারের মধ্যে বশেমুরবিপ্রবিসহ সাতটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, পিটিআই, শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব চক্ষু হাসপাতাল, এসেনশিয়াল ড্রাগ কোম্পানি, সুপার মার্কেট, গোবরা রেলস্টেশনসহ সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও শতাধিক দোকানপাট রয়েছে।

প্রায় পাঁচ বছর ঘোনাপাড়া এলাকায় স্টেশনারি দোকান পরিচালনাকারী মিকাইল থান্ডাট জানান, ‘সড়ক দূর্ঘটনা এখানের সাধারণ বিষয় হয়ে গিয়েছে। প্রতিদিনই এখানে দু-একটা দূর্ঘটনা ঘটে। নিরাপদে সড়ক পার হওয়ার জন্য এখানে ফুট-ওভার-ব্রিজ অত্যন্ত প্রয়োজন।’

গতবছর ১৩ জানুয়ারি ঘোনাপাড়া মোড়ে ট্রলিচাপায় মারা যান বশেমুরবিপ্রবির মার্কেটিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী চম্পা মন্ডল। ওই রাতে ঘোনাপাড়া মহাসড়ক দুই ঘণ্টা অবরোধ করে রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পরে উপাচার্য প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের উপস্থিতিতে জেলা প্রশাসকের নিকট ফুট-ওভার-ব্রিজের দাবিতে স্মারণলিপি দেন। জেলা প্রশাসকের আশ্বাসে আন্দোলন তুলে নিলেও গত ১৫ মাসে নেওয়া হয়নি ব্রিজ তৈরি উদ্যোগ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী সালমান রহমান বলেন, ‘গতবছর ঘোনাপাড়া মোড়ে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হওয়ার পর আমরা ওই স্থানে ফুট ওভার ব্রিজের জন্য আন্দোলন করেছিলাম। কিন্তু দুঃখের বিষয়, প্রশাসনের পক্ষ থেকে এখনো কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি, বরং এর মধ্যে ঘটেছে অনেকগুলো দূর্ঘটনা।’

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মো. মোখলেছুর রহমান বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন প্রেরিত স্মারকলিপি সড়ক ও যোগাযোগ অধিদপ্তরে পাঠিয়েছি, কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা কোন প্রতিক্রিয়া জানায় নি। আমরা সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবারও এ বিষয়ে চিঠি পাঠাবো এবং যথাযথ ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করবো।’

 

"