কাজু বাদাম চাষে বাড়তি আয়ের স্বপ্ন পাহাড়ে

প্রকাশ : ১৪ মে ২০১৯, ০০:০০

চহ্লামং মারমা, থানচি (বান্দরবান)

পাহাড়ে এখন কাজু বীজ তোলা মৌসুম। দুর্গম উপজেলা থানচিতে বাড়তি আয়ের উৎসব হিসেবে কৃষকদের বেছে নিয়েছে কাজু বাদামের চাষ। মাত্র এক হালি ধান রোপণের জায়গাতে বাদাম গাছ রোপণ করে বার্ষিক আয় করেছে লক্ষাধিক টাকা। এরই অংশ হিসেবে দিন্তেপাড়া বাসিন্দা নদ্রক ম্রো (৬০) আয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছে।

নদ্রক ম্রো সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতি বছরে মতো তিনি এবারেও ভালো লাভের আশায় কাজু বাদাম বীজের সংগ্রহ জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। বিগত বছরে তিনি ৩৫ মণ বিক্রি করে দেড় লক্ষাধিক টাকা আয় করেছিলেন। এ বছরে আরো ভালো দাম পাবেন বলে আশা করেছেন তিনি। বাদামের বাজার দর সম্পর্কে তিনি জানান, প্রতিদিন তিনি কষ্ট করে এক মণ বাদাম সংগ্রহ করেন। বাজারে মণপ্রতি এখন ৫ হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এ বছরে ৪০ থেকে ৫০ মণের বাদাম সংগ্রহ করতে পারবেন বলেও আশা করেন তিনি।

উপজেলায় সব জায়গাতে এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা কাজু বাদাম বীজ সংগ্রহ নিয়ে। দুর্গম সীমান্তে বড় মদক থেকে শুরু করে রেমাক্রী, তিন্দু, থানচি সদর ও বলিপাড়াতে কিছু সংখ্যক জায়গা ছাড়া সব জায়খাতে এখন বীজ সংগ্রহ করছে। কষ্ট থাকলেও আয় বা লাভটা ভালো। তাই বাড়তি লাভের আশায় সবাই ঝুঁকে পড়েছে কাজু বাদামের দিকে। কৃষি অফিস থেকে কোন সহায়তা বা প্রশিক্ষণ কথা জানতে চাইলে নদ্রক ম্রো বললেন, প্রথমে আমাদের প্রশিক্ষণ দিতÑ কীভাবে রোপণ করবে, কিন্তু এখন তো আর কোনো প্রয়োজন হয় না। তবে আমাদের উপজেলায় কাজু বাদামে চাহিদা বাণিজ্যিকভাবে পরিণত হলে আরো লাভবান হবে বলেও আশা করেছেন সাধারণ চাষিরা।

"