কালকিনিতে গৃহবধূর আত্মহত্যা পরিবারের দাবি হত্যা

প্রকাশ : ১৬ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি

মাদারীপুরের কালকিনিতে মোসা. ইয়াসমিন বেগম (১৮) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। তবে নিহতের পরিবারের দাবি যৌতুকের টাকা পরিশোধ করতে না পাড়ায় তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। গত শনিবার ভোররাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে স্বামীর পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। এদিকে ওই গৃহবধূর মৃত্যুর বিচার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেন এলাবাসী।

নিহদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত চার মাস আগে উপজেলার বাশগাড়ী এলাকার কালাইরচর গ্রামের ইদ্রিস আকনের মেয়ে ইয়াসমিনের সঙ্গে একই এলাকার দক্ষিন আকাল বড়িশ গ্রামের লিটন হাওলাদারের ছেলে রানা হাওলাদারের বিয়ে হয়। এর আগে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। এ বিয়ে কোন ভাবে মেনে নেয়নি রানার পরিবার। বিয়ের পর থেকে স্বামী লিটন তার মা মনোয়ারা বেগম ও বোন লিজাসহ পরিবারের লোকজন ইয়াসমিনের পরিবারের কাছে মোটা অংকের যৌতুক দাবি করে আসছে। দাবীকৃত টাকা দিতে না চাইলে তারা ইয়াসমিনকে প্রায়ই শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন করত। পরে নির্যাতন সইতে না পেরে ইয়াসমীন শুক্রবার রাতে কিটনাশক পান করে। পরিবারের লোকজন টের পেয়ে তাকে শরিয়তপুর সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। এদিকে গৃহবধূর পরিবারের লোকজন দাবি তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তবে এ ঘটনার পর থেকে স্বামীর পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে ইয়াসমিসের বাবার বাড়ির পরিবার।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি মো. মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। তবে গৃহবধূর পরিবার মামলা করলে নেয়া হবে।

"