নিকলীতে বিদ্যুৎহীন ১৬ কমিউনিটি ক্লিনিক

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

নিকলী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে কমিউনিটি ক্লিনিক রয়েছে ১৬টি। উপজেলার প্রায় ২ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান কেন্দ্রগুলো পড়ে আছে বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায়। এতে ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্য সেবা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জনগণের দৌরগোড়ায় স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দিতে সরকার ১৯৯৮ সালে সারা দেশে কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেন। এ উপজেলার ৭টি ইউনিয়নে ১৬টি কমিউনিটি ক্লিনিকে কার্যক্রম রয়েছে। উপজেলায় বিদ্যুৎ ব্যবস্থা অত্যান্ত নাজুক হওয়ায় ক্লিনিকগুলোতে আজও বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয় নাই। স্বাস্থ্য তথ্য প্রদান করার জন্য ক্লিনিক প্রধানদের (সি.এইচ.সি.পি) ল্যাপটপ দেয় কর্তৃপক্ষ। যা নিজ বাড়ী থেকে চার্জ করে আনতে হয় বলে জানায় শিহাব উদ্দীন।

সরজমিনে দেখা যায়, উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো প্রতিদিন ৪০-৫০ জন রোগীকে সেবা দিয়ে আসছে। এর মধ্যে গর্ভবতী, শিশুরোগ, ডায়াবেটিস, সাধারন চিকিৎসা এবং বিভিন্ন রোগের পরীক্ষাসহ ৩০ প্রকার ওষুধ বিতরণ করা হয়ে থাকে। বিদ্যুৎ না থাকায় রাতে ক্লিনিকের নিরাপত্তা নিয়ে হুমকীর সম্মুখীন হতে হয়। চার বছর আগে উপজেলার সবকটি ক্লিনিকে বৈদ্যুতিক ওয়াইরিং সম্পন্ন হলেও পরে আর সংযোগ দেয়নি কর্তৃপক্ষ।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আসআদ দীন মাহমুদ এ সব অভিযোগ সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সমন্বয়ে ক্লিনিক পরিচালনা কমিটি করে দেওয়া হয়েছে তারাই বুঝবেন বিদ্যুৎ সংযোগের বিষয়টি।

"