কলমাকান্দায় এক যুগ ধরে বন্ধ সিজারিয়ান অপারেশন

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

কলমাকান্দা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অজ্ঞানকারি ও গাইনি বিশষজ্ঞ ডাক্তারের অভাবে প্রায় এক যুগ ধরে বন্ধ রয়েছে প্রসবকালিন অপারেশন। ফলে এখানে গর্ভবতী মায়েরা জরুরি ও জটিল সময়ে চরম ভোগান্তি পোহাচ্ছেন।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, ৫০ শয্যার সরকারি এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজার অপারেশনের জন্য আছে অপারেশন থিয়েটার ও প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ। কিন্তু এখানে প্রায় বারো বছর ধরে অজ্ঞানকারি ডাক্তার থাকলেও থাকেনি গাইনি বিশেষজ্ঞ কিংবা গাইনি বিশেষজ্ঞ থাকলেও থাকেনি অজ্ঞানকারি ডাক্তার। এ অবস্থায় হাসপাতালটিতে প্রায় এক যুগ ধরে বন্ধ রয়েছে প্রসবকালিন জটিল ও জরুরি সময়ের সিজারিয়ান অপারেশন।

উপজেলার বিশরপাশা গ্রামের বাসিন্দা আলাল মিয়া বলেন, সম্প্রতি তার গর্ভবতী স্ত্রীকে প্রসবকালিন জটিল অবস্থায় সিজারের জন্য এ হাসপাতালে নিয়ে এসেছিলেন। কিন্তু সরকারি এ হাসপাতালটিতে সিজারের ব্যাবস্থা না থাকায় তাদের যেতে হয়েছে প্রাইভেট ক্লিনিকে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আল-মামুন বলেন, হাসপাতালেটিতে ওই দুই পদে ডাক্তার চেয়ে নিয়মিত প্রতিবেদন দেয়া হচ্ছে জেলা সিভিল সার্জন বরাবর।

নেত্রকোনা সিভিল সার্জন ডা. তাজুল ইসলাম খান বলেন, পূর্বে ‘জরুরি প্রসূতি সেবা’ কার্যক্রমের আওতায় কলমাকান্দায় সিজার অপারেশন হতো। এখন অজ্ঞানকারি ও গাইনি বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের সল্পতা রয়েছে। তাই এসব ডাক্তারের পোষ্টিং এখানে আপাতত দেয়া যাচ্ছে না। সংসদ সদস্য মানু মজুমদার বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে অবহিত করেছি।

"