হালুয়াঘাটে সেচ সংকটে অনাবাদি ৮ হাজার হেক্টর

প্রকাশ : ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০

হালুয়াঘাট (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

ময়মনসিংহের সিমান্তবর্তী হালুয়াঘাট উপজেলায় সেচের অভাবে প্রায় ৮ হাজার হেক্টর জমি অনাবদি হয়ে পড়ে আছে। এসব জমিতে রোপা আমনের পর বোরো আবাদ করা যায় না। এতে উপজেলার শত শত কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। ফলে প্রায় ১২ হাজার মেট্রিক টন ধান উৎপাদন থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কৃষক।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা সদর ইউনিয়ন, কৈচাপুর, ভূবনকুড়া, জুগলী ও গাজিরভিটা ইউনিয়নসহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের কয়েক হাজার হেক্টর বোরো জমি অনাবাদি পড়ে রয়েছে। কৃষি অফিস জানান চলতি মৌসুমে সেচের সু-ব্যবস্থা না থাকায় এসব জমি অনাবাদি রয়েছে। পানির লেয়ার নিচে থাকায় ব্যাক্তিগত উদ্যোগে নির্মাণ করা সেলো মেশিনেও পানি পাওয়া যায় না। সদর ইউনিয়নের কৃষক আমজত আলী বলেন, আমাদের এই এলাকায় রোপা আমন মৌসুমে ফসল করা যায়। কিন্তু গভীর নলকূপের অভাবে বোরো ফলন আমরা করতে পারিনা।

কৃষি অফিসের তথ্য বলছে, উপজেলায় ৩ হাজার হেক্টর বলা হলেও বাস্তবে তা দ্বিগুনেরও বেশি বলে জানান স্থানীয় কৃষকরা। এ বিষয়ে

উপজেলা কৃষি অফিসার সুলতান আহমদ বলেন, হালুয়াঘাটে এ বছর ২০ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। আমাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিলো ২০ হাজার ৬০০ হেক্টর। কিন্তু সেচের অভাবে প্রায় ৩ হাজার হেক্টর জমি অনাবাদি পড়ে আছে। বিষয়টি আমি মন্ত্রণালয়ে জানিয়েছি। এসব অঞ্চলে যদি গভীর নলকূল অথবা খাল খনন করা যায় তাহলে পানির অভাব থাকবে না।

"