‘জেব্রা ক্রসিং’ কী জানেন না বেড়ার অধিকাংশ চালক!

প্রকাশ : ১৭ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

আরিফ খাঁন, বেড়া (পাবনা)

পাবনার বেড়া উপজেলার মানুষ রাস্তায় কখনো ‘জেব্রা ক্রসিং’ দেখেনি। হয়তো অনেকে তার ঠিক সংজ্ঞাও জানে না। জানেন না লাইসেন্সধারী চালকেরাও। এই না জানাটা যেমন আশ্চর্যের, তেমনি শঙ্কার।

সড়ক দুর্ঘটনায় কোন ব্যক্তি আহত বা নিহত হলেই প্রতিবাদে সারা দেশেই হয় মানববন্ধন গাড়ি ভাংচুর রাস্তা অবেরোধ অহরহ। তাই সড়কের শৃঙ্খলা ফেরাতে দেখা যায় সরকারের নানা তোড়জোড়। সেই তোড়জোড় থেকেই সারা দেশে ট্রাফিক সপ্তাহ, ট্রাফিক ক্যাম্পেইন এবং সর্বশেষে বেড়ার সড়কের গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে স্কুলের সামনে ‘জেব্রা ক্রসিং’ এর কাজ শুরু হতে চলেছে।

ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানের আগে সকল যানবাহন চালকদেরকে জেব্রা ক্রসিংসহ সড়কের অন্তত ১৫ টি নির্দেশনা সম্বন্ধে ধারণা দেয়া হয়। কিন্তু বেড়ার নগরীতে চলাচলরত ৮০% ভাগ চালকই জানে না ‘জেব্রা ক্রসিং’ এর মানে কি। ফলে ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানের স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। কিন্তু সেই সাধারণ মানুষের মতো ‘জেব্রা ক্রসিং’ সম্বন্ধে জানেন না যানবাহন চালকেরাও। তার মানে এই নয় যে লাইসেন্সধারী চালকেরাও জানবে না। দু-একজন চালক ছাড়া সবার কাছে ‘জেব্রা ক্রসিং’ হচ্ছে রাস্তার এপাশ থেকে ওপাশ একটি মোটা সাদা দাগ।

পাবনার সদর ট্রাফিক পুলিশের টিআই নোমান জানান, ঢাকার বিভিন্ন জায়গায় মানুষের রাস্তা পারাপারের জন্য ফুটওভার ব্রিজ কিংবা জেব্রা ক্রসিং থাকলেও পাবনার রাস্তায় এরকম কিছুই নেই। পাবনাতে ৩০-৪০ টি ‘জেব্রা ক্রসিং’ থাকলেও বর্তমানে রয়েছে ১০-১২টি রাস্তা পুনরায় নির্মাণ করলেই মুছে যায়। এতে রাস্তা পারাপারে বিড়ম্বনায় পড়তে হয় সাধারণ মানুষের, বিশেষ করে স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের।

এ ব্যাপারে বেড়া কাশিনাথপুর ট্রাফিক পুলিশের টিআই অসীম কুমার চাকী বলেন, রাস্তায় এখন তো আর স্পীড ব্রেকার চোখেই পড়েনা। স্পীড ব্রেকারে নানা রকম অসুবিধা থাকলেও ‘জেব্রা ক্রসিং’ এ তা নেই। ‘জেব্রা ক্রসিং’ চিহ্ন দেয়ার কারণই হচ্ছে চিহ্নটি দেখে চালক তার যানবাহনটি নির্দিষ্ট গতিসীমার নিচে নিয়ে আসবে এবং কোনো দুর্ঘটনা ছাড়াই যাতে পথচারী সহজেই রাস্তা পার হতে পারে।

বেড়ার সিএনজি চালক মোনায়ার হোসেনের, এরশাদ, কাছে জেব্রা ক্রসিং সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, ‘জেব্রা ক্রসিং’ কি তাত কখনও শুনিনাই বুঝিই না। আমি আমার মত করে গাড়ি চালাই। এ ব্যাপারে পুলিশও কোনো কিছু বলে না।’

এ ব্যাপারে ইউএনও জনাব আসিফ আনাম সিদ্দিকী বলেন, ইতিমধ্যেমই আমাদের বিভাগীয় কমিশনার মহোদয় তালিকা নিয়েছেন বেড়া উপজেলায় কতটি জেব্রা ক্রসিং নির্মাণ করা প্রয়োজন। আমদের মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার তাদের স্কুলের তালিকা থেকে একটা তালিকা দিয়েছে তাদের কতগুলো জেব্রা ক্রসিং প্রয়োজন। প্রয়োজন মোতাবেক আমরা একটি চাহিদাপত্র পাঠিয়েছি।

 

"