খেলার মাঠের দাবিতে সড়ক অবরোধ

প্রকাশ : ১৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

লুৎফুল আলম সজল, নড়াইল

খেলার মাঠের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে নড়াইলের অর্ধশত বছরের পুরোনো মহাজন-ঘশিবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টায় বিদ্যালয়ের সামনের মহাজন-বারইপাড়া সড়কে মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ করে তারা। এর আগে শিক্ষার্থী ও স্থানীয়দের আয়োজনে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিদ্যালয় চত্বর থেকে শুরু হয়ে মহাজন বাজার প্রদক্ষিণ করে।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিশ^জিত সাহা, জেলা পরিষদ সদস্য হাদিউজ্জামান, মহাজন-ঘশিবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রিপন কুমার ঘোষ, শিক্ষক আরব আলী, জাহিদ হোসেন ফকির; শিক্ষার্থী অর্ঘ ঘোষ, জান্নাতুল ফেরদৌস ইতি প্রমূখ। এতে বিদ্যালয়ের আটশতাধিক শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবকসহ স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। বিদ্যালয় পরিচলনা কমিটি সূত্রে জানা যায়, ১৯৬৭ সালে ১ একর ৫৮শতক জমির উপর স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হলেও বিভিন্ন সময় প্রমত্তা নবগঙ্গা নদীর ভাঙ্গনের কবলে পড়ে। সর্বশেষ ২০০৩ সালে স্কুলটি সম্পূর্ণ নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেলে বর্তমান মহাজন-বারইপাড়া সড়কে ৫২শতক জায়গার ওপর স্কুলটি গড়ে ওঠে।

পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিশ্বজিত সাহা বলেন, শিক্ষার্থীদের মানসিক বিকাশ ঘটাতে, পড়াশুনার পাশাপাশি খেলাধুলার প্রয়োজন। বিদ্যালয়ের সংলগ্ন এক ব্যক্তির প্রায় এক একর জমি আছে। তার কাছে ‘ন্যায্য মূল্য’ দিয়ে কিনতে চাইলে জমি বিক্রি করতে রাজি না হওয়ায় মাঠ তৈরিতে বিঘœ হচ্ছে।

তবে জমির মালিক শ্রী মনোজ কুমার বলেন, আমি জমির মূল্য চেয়েছি ৭৫ লাখ টাকা আর বিদ্যালয় দিতে চাইছে ১০ লাখ টাকা। আমি ৭২ লাখ টাকার নিচে বিক্রি করতে পারি না। জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শহিদুর রহমান বলেন, ‘যেহেতু খেলাধুলা শিক্ষার অংশ তাই শিক্ষার্থী এটা ন্যায্য দাবি। আর বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যেহেতু ‘ন্যায্য মূল্য’ দিতে চাইছে, তাই জমির মালিকের উচিত হবে বিদ্যালয়ের কাছে তা বিক্রি করা। তিনি বলেন, আমি এখন ঢাকায়। জেলায় ফিরে জমির মালিক ও বিদ্যালয় পরিচলনা কমিটির সঙ্গে বসবো।’

 

"