গবাখালী খাল উপচে পানিবন্দি হওয়ার আশঙ্ক

বর্ষার আগেই সংস্কারের দাবি

প্রকাশ : ১৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

জামালপুর প্রতিনিধি

সংস্কারের অভাবে নালায় পরিণত হয়েছে জামালপুর শহরের গবাখালী খাল। বর্ষা এলেই শহরের বেশ কয়েকটি রাস্তা তলিয়ে বসতবাড়ীর অধিকাংশ মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়ার আশঙ্কায় রয়েছেন। বর্ষার আগেই খালটির সংস্কার চান স্থানীয়রা।

জামালপুর পৌর শহরের নয়াপাড়ার এলাকা থেকে মনিরাজপুর হয়ে কেন্দুয়া ইউনিয়নের স্লইচগেইট পর্যন্ত খালটি সংযুক্ত রয়েছে। এর দৈর্ঘ্য ৩ কিলোমিটার। খালটি ভরাট হওয়ায় ভোগান্তির শিকার হয়েছে পৌর শহরের পশ্চিম অংশের লক্ষাধিক মানুষ।

জামালপুর পৌর শহরের নয়াপাড়া পাঁচ রাস্তা এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা গোলাম মোস্তুফা সাদা মিয়া বলেন, আমাদের এলাকাটি এমনিতেই নিচু। বৃষ্টি হলেই এ এলাকায় হাঁটু থেকে কোমর পানি জমা হয়। এদিকে, গবাখালী খালটি ভরাট হয়ে যাওয়ায় পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থাও ভেঙে পড়েছে।

মনিরাজপুর এলাকার বাসিন্দা আবেদ আলী বলেন, গবাখালী খালের দুই পাড়ে ফসলি জমিতে এক সময় সেচ সুবিধা পেত কৃষকরা। প্রভাবশালীদের অবৈধ দখলে খালটি ভরাট হওয়ার কারণে সেচ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন তারা। সামনে বর্ষা শুরুর আগেই খালটি সংস্কারের দাবি জানান তিনি।

জামালপুর পৌর মেয়র মির্জা সাখাওয়াত আলম মনি বলেন, খালটি এ বছরই সংস্কারের কথা ছিল পানি উন্নয়ন বোর্ডের। কিন্তু নতুন করে দায়িত্ব নিয়েছে বিএডিসি। বিষয়টি এখন তারাই দেখবে।

বিএডিসি (ক্ষুদ্র সেচ) জামালপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু আহমেদ মাহমুদুল হাসান বলেন, চলতি অর্থবছরের সংস্কারে গবাখালী খালের নামের কোন তালিকা নেই। পৌরসভা প্রস্তাবনা পাঠালে আগামী অর্থ বছরে গবাখালী খালটি সংস্কার করে দেওয়া হবে।

 

"