নওগাঁয় গ্রাহকের টাকা নিয়ে প্রতারক উধাও

প্রকাশ : ১২ মার্চ ২০১৯, ০০:০০

নওগাঁ প্রতিনিধি

নওগাঁয় পোষ্ট অফিস থেকে অভিনব কায়দায় আবু বক্কর সিদ্দিক নামের এক গ্রাহকের টাকা নিয়ে পালিয়েছে এক প্রতারক। গত রোববার বিকেলের দিকে শহরের পোষ্ট অফিসে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগীর বাড়ি সদর উপজেলার বোয়ালিয়া দেওয়ান পাড়া গ্রামে।

জানা গেছে, পোষ্ট অফিসে আবু বক্কর সিদ্দিকের ‘মেয়াদী হিসেব’ আছে। স্বাক্ষর ছাড়া তেমন কিছু লিখতে পারেন না তিনি। দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে তিনি টাকা উত্তোলনের জন্য পোষ্ট অফিসে এসে তার চেকে স্বাক্ষর করে সেখানে উপস্থিত এক যুবককে টাকার অঙ্ক লিখে দিতে বলেন। চেকে ১ লাখ ৮ হাজার ৪৭০ টাকা লিখার পর ওই প্রতারক হিসাবধারীকে ছাড়াই পোষ্ট অফিসের ‘এসবি ক্যাশে’ জমা দেন। এ সময় পোষ্টাল অপারেটর খালিদ হাসান শিবু চেক পাওয়ার পর ওই যুবককে চেকের লিখিত অংকের টাকা পরিশোধ করেন। হিসাবধারী আবু বক্কর সিদ্দিকের অগোচরে টাকা নিয়ে পোষ্ট অফিস থেকে পালিয়ে যায় ওই যুবক। পরে থানা পুলিশকে বিষয়টি অবগত করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পোষ্ট অফিসে প্রতিদিন প্রায় কয়েক লক্ষ টাকা লেনদেন হয়ে থাকে। তবে সেখানে নিরাপত্তার জন্য কোন সিসি টিভি ক্যামেরা নাই। যে কোন সময় বড় ধরনের অঘটন ঘটতে পারে। নিরাপত্তার জন্য যেখানে বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে সিসি টিভি ও দারোয়ানসহ অন্যান্য ব্যবস্থা আছে। সেখানে জেলা শহরের প্রধান পোষ্ট অফিস হয়েও কোন ধরনের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নাই। পোষ্ট অফিসে সিসি টিভি ক্যামেরা থাকলে ভিডিও চিত্র দেখে ওই প্রতারককে সনাক্ত করা সম্ভব হতো বলে মনে করছেন একাধিক গ্রাহক।

পোষ্টাল অপারেটর খালিদ হাসান শিবু বলেন, ওই গ্রাহকের (আবু বক্কর সিদ্দিকের) ভাতিজা পরিচয় দিয়ে ওই যুবক চেকটি আমাকে দিয়েছিলেন। চেক পাওয়ার পর টাকা পরিশোধ করেছি। তবে ওই গ্রাহক দাবী করেন তিনি টাকা পাননি।

পোষ্ট মাস্টার মোজাহিদুর রহমান বলেন, তিনি প্রতারনার বিষয়টি অবগত আছে। ইতোপূর্বে ওই গ্রাহক হিসাব নম্বর থেকে টাকা উত্তোলন করেছেন। হয়ত তার ভুলের কারণে এমনটি হয়েছে। এছাড়া নিরাপত্তার জন্য পোষ্ট অফিসে সিসি টিভি ক্যামেরার বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে।

নওগাঁ সদর থানার ওসি আব্দুল হাই বলেন, ঘটনা শোনার পর পরপরই পোষ্ট অফিসে পুলিশ পাঠানো হয়। তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত ভুক্তভোগীর কাছ থেকে কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

 

"