কালীগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়

অতিরিক্ত ভর্তি ফি নেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশ : ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি
ama ami

গাজীপুরের কালীগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুল আহেদের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ভর্তি ফি নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, কালীগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে ২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ১০০ জন নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। নতুন শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ১ হাজার ৭৫০ টাকা ভর্তি ফি নেওয়া হয়। নতুন ওই শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ভর্তির জন্য ওই পরিমাণ টাকা ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের কথা উল্লেখ করে বিদ্যালয়ের গেটে নোটিশ টাঙিয়ে দেওয়া হয়। তবে ওই নোটিশের বাহিরেও একই শিক্ষাবর্ষে ৭ম থেকে ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কাছ থেকেও নেওয়া হচ্ছে অতিরিক্ত ফি। ৭ম ও ৮ম শ্রেণিতে ১ হাজার ৭৩৫, ৯ম ও ১০ শ্রেণিতে শিক্ষার্থীদের কাছে ১ হাজার ৭৯৫ টাকা নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও বিদ্যালয়ের চত্ত্বরে কোচিং বাণিজ্য করারও অভিযাগ আছে ওই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীর এক অভিভাবক জানান, চলতি মাসের শুরুতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ে বিশেষ ক্লাস নামে একটি কর্মসূচি শুরু করতে চায়। যাতে শিক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলকভাবে অংশ গ্রহণের কথা বলা হয়। আর এর ফি ধার্য্য করা হয় মাসে শিক্ষার্থী প্রতি দেড় হাজার টাকা। কিন্তু অভিভাককদের চাপের মুখে ওই সময় বিশেষ ক্লাস বন্ধ রাখলেও পরে যে কোন দিন শুরুর সময় জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল আহেদ মুঠো ফোনে বলেন, ভর্তি ফি কত নিয়েছে সেটাতো আমি বলতে পারবো না। একটা তালিকা করে দেওয়া হয়েছে সে হারে নেওয়া হচ্ছে। আর এটা তো ফোনে বলা সম্ভব না। আপনি আসেন, এসে দেখে যান। আর কোচিং এর নামে বিশেষ ক্লাসের কথা তিনি অস্বীকার করেন।

কালীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নূর-ই-জান্নাত বলেন, এ ব্যাপারে তিনি কিছু জানেন না। তবে যেহেতু জেনেছেন বিষয়টি তিনি দেখবেন বলেও জানান। কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মু. মুশফিকুর রহমান বলেন, সরকারি বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত ফি প্রধান শিক্ষক নিতে পারে না। এ ধরনের কাজ করে থাকলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

"