বাকপ্রতিবন্ধীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ

প্রকাশ : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ১৪ বছরের এক বাকপ্রতিবন্ধী কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় গতকাল শনিবার দুপুরে অভিযুক্ত ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। পরে জেলা পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। গত ৬ ফেব্রুয়ারী রাতে উপজেলার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের বানুড়িয়া গ্রামে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে।

আটককৃতরা হলো- বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে সেলিম পাটয়ারী, বানুড়িয়া গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে সাঈদ হোসন, নুর আলীর ছেলে রাকিব হোসেন এবং লাল চানের ছেলে আশিক। প্রতিবেশি স্থানিয়রা জানান, গত বুধবার রাতে অভিযুক্তরা ধর্ষিতা মেয়েটির বাড়িতে টেলিভিশন দেখছিল। তখন মেয়েটি ঘরের বারান্দায় বসে খাবার খাচ্ছিল। কিছুক্ষণ পর তাকে বাড়িতে না দেখতে পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিবারের লোকজন। পরে বাড়ির পাশে একটি বাগানে বিবস্ত্র অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করা হয়। ধর্ষিতার বাবা জানান, ঘটনার পর থেকেই ধর্ষণকারীরা তাকে ও তার পরিবারকে হুমকি দিয়ে আসছিল কাউকে না বলার জন্য। শুক্রবার রাতেও সাঈদ নামের ছেলেটি তাকে আবারো বাড়িতে এসে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইউনুচ আলী ঘটনার সত্যতা শিকার করে জানান, সংবাদ পেয়ে বিকালে পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ধর্ষনের শিকার ওই কিশোরীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আটককৃতদের পুলিশ সুপারের উপস্থিতিতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

"