মহম্মদপুরে ১৮টি প্রাথমিকে নেই প্রধান শিক্ষক

প্রকাশ : ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি
ama ami

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার ১৩৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ১৮টি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নেই। চলছে ভারপ্রাপ্তদের দিয়ে শিক্ষাদানসহ প্রশাসনিক কার্যক্রম। এতে বিদ্যালয়সমূহে ব্যাহত হচ্ছে পাঠদান প্রক্রিয়া ও প্রশাসনিক কাজ।

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় ১৩৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। যার মধ্যে ১৮টিতে প্রধান শিক্ষকের পদ দীর্ঘদিন ধরে শূন্য রয়েছে। এরমধ্যে চারটি পদের বিপরীতে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। বিদ্যালয়গুলো হলো কেরীনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বৃহষনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাবুখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মোবারেকপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রামকৃষ্ণপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বহলবাড়ীয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরসেলামতপুর শ্রীফলতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পাড়–য়ারকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আড়পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দেউলি চরপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, খালিয়া পশ্চিমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মশাখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, যশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাঁশো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরঝামা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঢুষরাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পরমেশ^রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

এসব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শুন্য থাকায় একজন সহকারি শিক্ষককে ভারপ্রাপ্ত সহকারি শিক্ষকের দায়িত্ব দিয়ে চালানো হচ্ছে পাঠদানসহ প্রশাসনিক কাজকর্ম। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব থাকায় এসব শিক্ষক উপজেলা সদরে দাফতরিক কাজে ব্যস্ত থাকেন। এছাড়া প্রতিবছর পিটিআইতে ২০/২৫জন প্রধান ও সহকারি শিক্ষক প্রশিক্ষণে যান। এ বছর চাহিদা বেশি থাকায় ৭৪ জন শিক্ষককে প্রশিক্ষণে পাঠানো হয়েছে। ফলে ওইসব শিক্ষক না থাকায় শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা মারাত্মকভাবে বিঘœ ঘটছে বলে অভিযোগ অভিভাবকদের।

এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা শিক্ষা অফিসার পলাশ মন্ডল বলেন, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের দিয়ে উপজেলার ১৮টি স্কুল চালানো হচ্ছে। তবে ইতোমধ্যে প্রধান শিক্ষকের পদশূন্য বিদ্যালয়গুলোর তালিকা করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর পাঠানো হয়েছে।

 

"