নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতাল

২ বছর ধরে তালাবদ্ধ হৃদরোগ বিভাগ

প্রকাশ : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

ওয়ালি মাহমুদ সুমন, নীলফামারী
ama ami

দুই বছর ধরে তালাই ঝুলছে নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের দরজায়। বিভাগ খোলার পর থেকে কোনো কাজেই আসছেনি রোগীদের। ফলে কক্ষবন্দি থেকেই নষ্ট হচ্ছে ২৫ লাখ টাকার অধিক মূল্যের ১০ শয্যার এই ইউনিটের সরঞ্জম।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, ইউনিট চালানোর জন্য পুরো আলাদা অভিজ্ঞ জনবল প্রয়োজন যা আমাদের নেই। বাধ্য হয়ে এই বিভাগাটিকে বন্ধ রাখতে হয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, দুই বছর আগে তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের বিশেষ বরাদ্দে কার্ডিওলজি বিভাগের জন্য ২৫ লক্ষাধিক টাকার সরঞ্জামাদি প্রদান করা হয় নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালে। কিন্তু এজন্য ছিল না প্রয়োজনীয় জনবল কিংবা আলাদা ব্যবস্থা।

নীলফামারী আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) আসাদ আলম জানান, কার্ডিওলজি (হৃদরোগ) বিভাগের জন্য প্রয়োজন হয় একেবারের আলাদা সেটআপ দক্ষ জনবল ও সংশ্লিষ্ট বিভাগের ডাক্তার। আমাদের এখানে মাত্র একজন চিকিৎসক রয়েছেন যা দিয়ে ইউনিট চালানো কিংবা রোগীর চিকিৎসা দেওয়া কোনোভাবে সম্ভব নয়। তিন শিফটে ইউনিটটির জন্য বিশেষজ্ঞ ও মেডিকেল কর্মকর্তাসহ অন্তত ১০ জন চিকিৎসক এবং ২০ জন নার্স প্রয়োজন। এ ছাড়া আইসিইউ এবং সিসিইউ’র জন্য প্রয়োজন আলাদা ব্যবস্থা কিন্তু কিছুই নেই এখানে। যেসব চিকিৎসা সরঞ্জামাদি রয়েছে সেগুলো মাঝে মাঝে পরীক্ষা করে দেখা হয়। এগুলোর মূল্য ২৫ লাখ টাকারও ওপরে।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের শীর্ষ কর্মকর্তা সিভিল সার্জন রনজিৎ কুমার বর্মন জানান, কোনো ক্ষমতা নেই আমাদের এই ইউনিট চালানোর মতো। হৃদরোগীদের চিকিৎসার জন্য আলাদা ব্যবস্থা দরকার যা আমাদের এখানে নেই।

তিনি বলেন, প্রতি মাসে গড়ে ৩০-৩৫ জন রোগীকে আমরা রেফার্ড করি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। তাদের চিকিৎসা দেওয়ার মতো সাধ্য নেই আমাদের এই হাসপাতালে।

 

"