মুক্তিপণ দাবি

বরিশালে ৩ দিনেও উদ্ধার হয়নি অপহৃত শিশু

প্রকাশ : ০৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

বরিশাল প্রতিনিধি

বরিশালে নিখোঁজের তিন দিনেও উদ্ধার হয়নি সাড়ে ৩ বছর বয়সী শিশু দীপা রানী পুটি। দীপাকে ফিরিয়ে দেওয়ার শর্তে অজ্ঞাত মুঠোফোনে ৪০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছেন অপহরণকারীরা। এ ঘটনায় থানায় মামলা করেছেন ওই শিশুর বাবা। এদিকে এ ঘটনায় গত সোমবার পর্যন্ত ৯ জনকে আটকের কথা জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, অপহরণের ঘটনায় ৯ জনকে আটকের পাশাপাশি শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।

স্বজনরা জানায়, অপহৃত শিশু দিপা রানীর বাবা বিনয় সমাদ্দার নগরের কাউনিয়া বাশেরহাট এলাকার একটি মিষ্টির দোকানের কর্মচারী। তিনি নগরীর ২০ নম্বর ওয়ার্ডের কলেজ এভিনিউতে ভাড়া বাড়িতে থাকেন। গত রোববার সকাল ১০টায় কলেজ এভিনিউর মসজিদ গলির বাড়ির সামনে খেলতে যায় দীপা। এরপর থেকে নিখোঁজ হয় সে। এদিকে এ ঘটনায় ওই দিন বিকেলের দিকে দীপার বাবা বিনয় সমদ্দারের মুঠোফোনে অপরিচিত এক ব্যক্তি দীপার মুক্তিপণ বাবদ ৪০ লাখ টাকা দাবি করেন। কিন্তু এরপর ওই ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তার কোনো সন্ধান না পেয়ে পর দিন সোমবার দুপুরে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি মামলা করেন দীপার বাবা বিনয় সমদ্দার।

এদিকে একমাত্র সন্তান দীপাকে হারিয়ে পাগলপ্রায় তার মা চায়না সমদ্দার। তিনি শুধু মুর্ছা যাচ্ছেন, আর মেয়েকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জানাচ্ছেন।

এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়াসহ দীপাকে উদ্ধারের জন্য জোর প্রচেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম। এখনো দীপাকে ফিরে পাওয়ার আশা করছেন তারা।

ওসি নুরুল ইসলাম বলেন, ‘যার ফোন দিয়ে মুক্তিপণ দাবি করা হয়েছিল সেই রাসেলকে আটক করা হয়েছে। সেই সঙ্গে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সোমবার সকাল থেকে সারা রাত অভিযান চালিয়ে নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে আরো আটজনকে আটক করা হয়।’

ওসি নুরুল ইসলাম আরো বলেন, রাসেল জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে জানিয়েছে অপহরণ করেনি। শুধুমাত্র টাকা আদায়ের জন্য ফোন দিয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

"