‘মেলা চেষ্টা করলাম অহনো এডা কার্ড অইলো না’

প্রকাশ : ০৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০

শ্রীবরদী (শেরপুর) প্রতিনিধি

‘মেলা চেষ্টা করলাম। অহনো এডা কার্ড অইলো না। মেম্বার চেয়ারম্যানদের কইলাম। কেউ আমার কথা শুনলোনা। আপনারাই কন আর কত বয়স অইলে আমার কার্ড অইবো।’

সমম্প্রতি সরেজমিন গেলে কথাগুলো বলেন মমেনা বেগম (৯৬) নামের এক বৃদ্ধা। তিনি শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার তাতিহাটি ইউনিয়নের ভটপুর গ্রামের মৃত মজিবর আলীর স্ত্রী। তার বাবার নাম মৃত সোবাহান শেখ। মা মৃত সিন্দুরি বেওয়া।

জানা গেছে, তার এক ছেলে ও দুই মেয়ে। মেয়ে দুটিকে বিয়ে দিয়েছেন। একমাত্র ছেলেটিও দীর্ঘদিন যাবত রোগে ভূগছেন। মমেনা থাকেন ছেলের সাথে একটি ঝুপড়ি ঘরে। এটিও অন্যের জমিতে। ৯৬ বছর বয়সের হতদরিদ্র এ বৃদ্ধা আগে আশপাশের বাড়িতে ভিক্ষে করে জীবিকা নির্বাহ করেছেন। এখন আর হাটাচলা করতে পারেনা। এজন্য ঝুপড়ি ঘরে পড়ে থাকে। কেউ খাবার দিলে খায়। খাবার না দিলে থাকেন উপোষ।

ওই বৃদ্ধার ছেলে সুরুজ মিয়া বলেন, ‘আমার বয়স প্রায় ৭০ বছর। আমি নিজেও অসুখে ভোগছি। আগে অন্যের বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতাম। এখন অসুখের কারণে তাও করতে পারিনা। এখন নিয়তি ছাড়া আমগোর আর উপায় নাই।’

ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য লূৎফর রহমান বলেন, তারা আমার কাছে এসেছিল। তাদের দুরাবস্থা দেখে আমি তার নাম তালিকা করে উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরে জমা দিয়েছিলাম। কিন্তু এখন জানতে পারলাম তালিকায় তার নাম নেই।

উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা সরকার নাছিমা আকতার বলেন, আমি তার নাম লিখে নিলাম। তার নাম কার্ডের তালিকা অন্তর্ভুক্তির জন্যে গুরুত্বের সাথে দেখা হবে।

 

"