মির্জাগঞ্জে ঘুষের টাকাসহ সার্ভেয়ার ইউএনওর হাতে আটক

প্রকাশ : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার বেলায়েত হোসেনকে আবাসন প্রকল্পের ঘর দেওয়ার জন্য নেওয়া ঘুষের টাকাসহ ইউএনও ইকবাল হোসেনের হাতে ধরা পড়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার বিকালে উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ারের কক্ষে।

জানা যায়, বুধবার উপজেলার দেউলী এলাকা থেকে আসা এক বৃদ্ধা মহিলা ফুলবানু (ছদ্দনাম) উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে একটি নারিকেল গাছের নিচে বসে ছিলেন। বৃদ্ধাকে দেখে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ইকবাল হোসেন তাকে তাঁর অফিস কক্ষে নিয়ে গিয়ে চেয়ারে বসতে দেন এবং বৃদ্ধার ঘটনা শুনেন। পরে বৃদ্ধাকে দেউলী আবাসন প্রকল্পের ঘর থেকে একটি ঘর দেওয়ার কথা বলে উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার বেলায়েত হোসেনের কাছে পাঠান। বৃদ্ধা মহিলা সার্ভেয়ারের কাছে গেলে আবাসনের ঘর পাওয়ার জন্য ১০ হাজার টাকা লাগবে বলে জানান তিনি। পরে অসহায় বৃদ্ধা মহিলা ইউএনও’র কাছে গেলে তাকে না পেয়ে তিনি আবারও নারিকেল গাছের নিচে বসে অপেক্ষা করেন। ইউএনও তাঁর অফিসিয়াল কাজ শেষ করে বুধবার দুপুরের পরে বাসার যাওয়ার পথে তাকে দেখে ঘর পাওয়ার বিষয়টি জানতে চান। বৃদ্ধা মহিলা ঘটনা খুলে বলেন এবং টাকা ছাড়া ঘর না পাওয়ার বিষয়টি বলেন। ইউএনও তাৎক্ষনিক তাকে (বৃদ্ধা) অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে তাঁর বেতনের টাকা থেকে ৬ হাজার টাকা বৃদ্ধা মহিলার হাতে দেন। ইউএনও টাকার গায়ে তাঁর মোবাইল নম্বার লিখে দেন ও টাকার নাম্বারগুলো লিখে রাখেন। অন্য একজনের একটি মুঠোফোনের মাধ্যমে সার্ভেয়ারকে বৃদ্ধা মহিলা ফোন করে বলেন, সার্ভেয়ার স্যার আমি ১০ হাজার টাকা জোগাড় করতে পারিনি, মাত্র ৬ হাজার টাকা জোগাড় করেছি। ওই টাকা নিয়ে বৃদ্ধা মহিলা উপজেলা ভূমি অফিসে গিয়ে সার্ভেয়ারের হাতে দেন। কিছুক্ষন পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ভূমি অফিসে গিয়ে টাকাসহ তাকে হাতে-নাতে ধরে ফেলেন। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সার্ভেয়ার বেলায়েত হোসেন বলেন, আমি আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘরের ব্যাপারে কোন টাকা-পয়সা নেইনি। আমাকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ফাঁসানো হয়েছে এবং শারিকভাবে লাঞ্চিত করা হয়।

উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও ইউএনও ইকবাল হোসেন বলেন, আবাসন ঘর পেতে কোন টাকা লাগে না। যে টাকা লাগে তাও অসহায় মানুষকে সরকার দিচ্ছে। তবে অসহায় মানুষের কাছ থেকে যারা আবাসনের জন্য টাকা-পয়সা নিবে সে যেই হোক না কেন তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

"