দাকোপ ৫১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতাল

মেডিকেল অফিসারসহ ৭৯ পদ শূন্য

প্রকাশ : ০৫ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

গোলাম মোস্তফা খান, দাকোপ (খুলনা)
ama ami

খুলনার দাকোপ উপজেলা ৫১ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে দীর্ঘকাল যাবৎ ১৬ জন মেডিকেল অফিসারসহ ৭৯ পদটি শূন্য রয়েছে। চিকিৎসক সংকটে ব্যাহত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা। এতে দাকোপসহ দক্ষিনাঞ্চলের কয়েকটি উপজেলার মানুষকে চরম দুর্ভাগ পোহাতে হচ্ছে বছরের পর বছর।

জানআ গেছে, খুলনার দাকোপ ছাড়াও প্রতিদিন পাইকগাছা, কয়রা, রামপাল, মোংলা ও বটিয়াঘাটা উপজেলার শত শত রোগী চিকিৎসাসেবা নিতে দাকোপ হাসপাতালে ভিড় করে। প্রতিদিনই ১০০ থেকে ১২০জন রোগী হাসপাতালের বারান্দাসহ বিভিন্নস্থানে গাদাগাদি অবস্থায় অতিকষ্টে রাত যাপন করে চিকিৎসা নেয়। এ হাসপাতালে প্রচন্ড রোগির চাপ থাকা সত্বেও ২২জন মেডিকেল অফিসারের মধ্যে বর্তমানে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোজাম্মেল হোসেন নিজামীসহ আছেন মাত্র ৬জন চিকিৎসক। ১৬জন মেডিকেল অফিসারের পদ শূন্য। এছাড়াও নার্স পাঁচজন, স্বাস্থ্য সহকারি ৮জন, অফিস সহায়ক তিনজন, ওয়ার্ড বয় দুইজন, ওটিবয় একজন, নিরাপত্তা প্রহরী দুইজন, জুনিয়র মেকানিক, সুইপার তিনজন, বাবুর্চি, মালি, আয়াসহ মোট ৭৯জনের পদ খালি দীর্ঘকাল। চিকিৎসকসহ এতগুলো পদ খালি থাকায় রোগিদের ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাড়িয়ে থেকেও কাঙ্খিত চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ।

সরেজমিনে দাকোপ হাসপাতালে দেখা যায়, সেবা নিতে আশা নারী-পুরুষের দীর্ঘ সারি। রোগিদের ভীড়ের মাঝে আবার বেশকিছু মহিলা ও পুরুষ দালালদের উৎপাত লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বিশেষ করে গ্রাম থেকে চিকিৎসাসেবা নিতে আসা নারীদের দেখা মিললেই তাদের নিয়ে টানা হেচড়া শুরু করেন দালালরা। হাসপাতাল লাগোয়া গড়ে ওঠা কয়েকটি ডায়োগনষ্টিক সেন্টারে পরীক্ষা নিরীক্ষা নিয়েও দালালদের বেশ উৎপাত চলছে বলে ভূক্তভোগী রোগিদের অভিযোগ। সব মিলিয়ে রোগিদের বেশ হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে খুলনার দক্ষিনের জনবহুল এলাকার এ হাসপাতালটিতে।

হাসাপাতালের সার্বিক বিষয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোজাম্মেল হোসেন জানান, জনবল সংকটসহ নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়েও চিকিৎসাসেবা অব্যাহত রয়েছে। তবে, পদ খালির বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নিলে চিকিৎসাসেবা আরো বেশি বেগবান হবে।

 

"