শিম চাষে চরাঞ্চলের কৃষকদের ভাগ্যবদল

প্রকাশ : ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০

কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার লোহাজুড়ি ইউনিয়নের চরাঞ্চলে শিম চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন শতাধিক কৃষক। বিভিন্ন স্থানীয় জাতের শিম চাষ করে লাভবান হয়েছেন দরিদ্র এই জনপদের কৃষকরা। অল্প পুঁজিতে অধিক লাভে হাসি ফুটেছে কৃষকদের মুখে। উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামে বাণিজ্যিকভাবে বাড়ছে শিমের আবাদ। তবে শিম চাষকে আরো সম্প্রসারিত করতে সরকারিভাবে সহযোগিতার দাবি স্থানীয় শিম চাষিদের। গতকাল সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলা জুড়ে অধিকাংশ খেতেই শীতকালীন সবজি শিমের চাষ। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, শিম ছাড়াও জমিতে সাথী ফসল হিসেবে হলুদসহ বিভিন্ন রকমের সবজি চাষ হচ্ছে। তবে উপজেলায় ব্যাপকভাবে শিম চাষ হচ্ছে।

শিম চাষী একাধিক কৃষক জানান, তারা সবাই এবার শিম চাষ করেছেন। ইতোমধ্যেই লাভের মুখ দেখতে শুরু করেছেন। এ বছর খরচ বাদ দিয়ে প্রতিটি খেত এক থেকে দেড় লাখ টাকা আয় হবে বলে আশাবাদী তারা।

স্থানীয় কৃষক আলম মাস্টার বলেন, প্রথমে আমি এক বিঘা জমিতে শিম চাষ করেছি এবং যতটা আশা করছি তার চেয়ে বেশি লাভবান হই। শীতকালীন যে কোন সবজির চেয়ে শিম চাষ অনেক লাভজনক। লোহাজুড়ি ব্লকের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা শংকর কুমার বলেন, শিম চাষিদের জন্য আমরা প্রতিনিয়ত মাঠ পর্যায়ে আলোক ফাদ, সেক্স ফেরোমনসহ বিভিন্নভাবে কৃষকদের পরামর্শ দিয়েছি। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মুকশেদুল হক জানান, এ বছর উপজেলায় এক হাজার হেক্টর জমিতে শিম চাষ হয়েছে। সামনের বছর আবাদের পরিমাণ আরও বাড়তে পারে।

"