যশোর-৬

নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ১১ জন

প্রকাশ : ১১ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে আ.লীগের মনোনয়ন নিতে ১১ জন প্রার্থী ঢাকায় অবস্থান করছেন। প্রার্থীদের অনুসারী ও কয়েকজন জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন প্রত্যাশায় ঢাকাতে অবস্থান করায় এলাকাটি নেতা শূন্য হয়ে পড়েছে।

১ লাখ ৯৩ হাজার ৫৩৪ জন ভোটারের প্রতিনিধিত্ব করার সংগ্রামে আ.লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শামিল হয়েছেন দলটির মনোনয়নপ্রত্যাশীরা।

তারা হলেন বর্তমান এমপি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইুসমাত আলা সাদেক, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিন, সহসভাপতি ও কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এইচ এম আমির হোসেন, ড. তাপস দাস, উপজেলা আ.লীগের সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা, আ.লীগ নেতা হুসেইন মোহাম্মদ ইসলাম, এবাদত সিদ্দিকী বিপুল, শেখ রফিকুল ইসলাম, আব্দুল মান্নান।

দলীয় মনোনয় ক্রয় পরবর্তীকে হচ্ছেন নৌকার মাঝি তা নিয়ে চলছে চায়ের দোকান, রেষ্টুরেন্টসহ বিভিন্ন হাটবাজারে চুল চেরা বিশ্লেষন। মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে প্রত্যেক প্রার্থীই আশাবাদী। স্থানীয় এমপি ইসমাত আরা সাদেকের পক্ষে এখনও মাঠে ময়দানে উন্নয়নের প্রচারপত্র বিলি চলছে। আবার উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে নৌকার পক্ষে মিছিল শো ডাউন অব্যাহত রয়েছে। বিভিন্নস্থানে উঠান বৈঠকে উন্নয়নমূলক কর্মান্ডের বর্ননাকালে তিনি মনোনয়ন প্রত্যাশা করেছেন।

উপজেলা আ.লীগের সভাপতি এস এম রুহুল আমিন মনোনয়নের বিষয়ে আশাবাদী। তিনি উপজেলা আ.লীগের হাল ধরে থাকায় দলের অবস্থান সুর্দঢ় করাসহ দলীয় প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিত করেছেন সে ক্ষেত্রে তিনি এবারের নির্বাচনে বঞ্চিত হবেন না বলে মতামত প্রকাশ করেছেন। মনোনয়ন প্রত্যাশী এইচ এম আমির হোসেন বিভিন্ন স্থানে বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের প্রার্থীতা ও দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হবেন না বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। এ ছাড়াও অন্যরাও মনোনয়ন প্রত্যাশা করে চলেছেন। সব কিছু দলীয় হাইকমান্ডের চুড়ান্ত ডিসদ্ধান্তের উপর নির্ভর করছে।

এদিকে মনোনয়ন প্রতদ্যাশীদের সঙ্গে নুতন মাত্রা যোগ হয়েছে চলচিত্র অভিনেত্রী শাবানার স্বামী ওয়াহিদ সাদিকে নিয়ে। তিনি এ আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন ক্রয় করতে পারেন বলে এমন আভাস রয়েছে এলাকায়। সব মিলিয়ে কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি তার জন্য চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকার অপেক্ষা করতে হবে কেশবপুরবাসীকে।

 

"