কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কিশোরীকে মারধর

প্রকাশ : ১৪ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

পলাশ (নরসিংদী) প্রতিনিধি

নরসিংদির পলাশে এক কিশোরী কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগের পর পুলিশ স্থানিয় ছাত্রলীগ নেতাসহ তিন জনকে আটক করেছে। গত শুক্রবার উপজেলার ঘোড়াশাল পৌরসভার (ওয়াপদা) নতুন বাজার এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ ও ভুক্তভোগি ওই কিশোরী জানান, পরিবারের অভাব-অনোটন দূর করতে পিতা-মাতাকে আর্থিক সহায়তা করতে গত শুক্রবার বিকেলে নতুন বাজার এলাকায় খালা’র ভাড়া বাসায় ওঠেন। সেখানে তাকে চাকুরির ব্যবস্থা করে দেওয়ার কথা বলে ছিল তার আপন খালা রোকেয়া বেগম। কিন্তু চাকুরির ব্যবস্থা না করে ওই কিশোরীকে দিয়ে দেহ ব্যবসা করানোর জন্য উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর ছাত্রলীগে উপ-ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক কাউছার (হামিদ) এর হাতে তুলে দেওয়া হয়। পরে ছাত্রলীগ নেতা কাউছারের দেওয়া কুপ্রস্তাবে রাজি না হলে ওই কিশোরীকে এলোপাতাড়ি মারধর করে। এ সময় তার সঙ্গে থাকা মোবাইল, টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নিয়ে প্রায় ২ ঘন্টা কিশোরীকে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে। পলাশ থানার এসআই মীর সোহেল রানা জানান, স্থানীয় সূত্রে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনার সাথে জড়িত কাউছার (হামিদ), সাব্বির হোসেন ও রোকেয়া বেগমকে আটক করা হয়। এ ব্যাপারে ওসি মকবুল হোসেন মোল্লা জানান, আটককৃত কাউছার বিভিন্ন সময় ভয়-ভীতি দেখিয়ে অসহায় মেয়েদেরকে দিয়ে অসামাজিক কাজ-কর্ম করে আসছে। কাউছারের কাছ থেকে উদ্ধারকৃত মোবাইল ফোনে ওইসব অসামাজিক কাজের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

 

"