শরণখোলায় বেড়িবাঁধ বিধ্বস্ত

সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্দি ২০টি পয়েন্ট ঝুঁকিতে

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বাগেরহাটের শরণখোলায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) ৩৫/১ পোল্ডারের বগী ও গাবতলা এলাকার প্রায় ১০০ মিটার বেড়িবাঁধ ডেবে গেছে। সেখান থেকে নদীর জোয়ারের পানি প্রবেশ করে অন্তত ২০০ বাড়িঘরের সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। তলিয়ে গেছে ফসলের মাঠ। পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। এদিকে, ওই এলাকার আরো ২০টি পয়েন্টে ফাটল দেখা দেওয়ায় দেবে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। ফলে এলাকাবাসীর মাঝে ভাঙন আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

সরেজমিনে ওই এলাকা ঘুরে ও এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত মঙ্গলবার ভোরে হঠাৎ বেড়িবাঁধের ওই অংশের ১০০ মিটার বিধ্বস্ত হয়। এ সময় জোয়ারের পানি প্রবেশ করে বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়ে।

বগী গ্রামের খালেক হাওলাদার, সামসু সিকদার ও মতি মল্লিক জানান, তারা এবার ইরি-৫২ জাতের ধান চাষ করেছেন। তা পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় তারা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা করেছেন। ওই গ্রামের বেলাল হোসেন জানান, অন্যান্যদের মতো তার পুকুরে চাষ করা মাছ ভেসে গেছে। বগী এলাকার ইউপি সদস্য রিয়াদুল পঞ্চায়েত জানান, পাঁচ শতাধিক একর জমির ইরি ফসল তলিয়েছে। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত ও ঝুঁকিপূর্ণ সাউথখালী এলাকায় বেড়িবাঁধের কাজ অগ্রাধিকার দিয়ে না করে কাজ করা হচ্ছে অপেক্ষাকৃত ঝুঁকিমুক্ত সোনাতলা, রসুলপুরসহ বিভিন্ন এলাকায়। ফলে সাউথখালী ও বগী এলাকায় বারবার বেড়িবাঁধ ভেঙে পানি প্রবেশ করে এলাকাবাসীর ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে। ইউএনও লিংকন বিশ্বাস বলেন, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট বিভাগকে অবহিত করা হয়েছে।

বেড়িবাঁধ প্রকল্পের প্রকৌশলী শ্যামল দত্ত জানান, তাদের টিম ঘটনাস্থল ঘুরে দেখে এসেছে। ভাঙা স্থানে রিং বাঁধের কাজ শুরু হবে বলে জানান তিনি।

 

"