রাতের আলোয় দিনের ঝলকানি

মোরেলগঞ্জে ১৬টি ইউনিয়নে সোলার প্যানেল স্থাপন

প্রকাশ : ১১ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০

মোরেলগঞ্জ (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নে সোলার প্যানেল বসানো হয়েছে। এলাকার মসজিদ, মন্দির, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট, হাটবাজার ও জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্থাপন করা হয়েছে সোলার হোম সিস্টেম ও সোলার প্যানেলের ল্যাম্পপোস্ট। ল্যাম্পপোস্টের আলোয় গ্রামের মেঠো পথের কাঁচা-পাকা রাস্তাঘাট ও হাটবাজার আলোকিত হয়েছে। উপকৃত হচ্ছেন এলাকাবাসী ও পথচারী। ফলে রাস্তাঘাটে কমেছে চুরি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ড। তবে অপরাধমূলক কর্মকান্ড ঠেকাতে রাস্তায় আরো পর্যাপ্ত পরিমাণ সোলার প্যানেল ল্যাম্পপোস্ট স্থাপন করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন এলাকাবাসী ও সচেতন মহল।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ত্রাণ পুনর্বাসন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় টিআর, কাবিখা, কাবিটা ও বিশেষ বরাদ্দের প্রায় দুই কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০০টি প্রকল্পের মাধ্যমে সোলার হোম সিস্টেম ও সোলার প্যানেলের স্ট্রিট লাইট স্থাপনের কাজ করা হয়েছে। উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নের মসজিদ, মন্দির ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫০০টি সোলার হোম সিস্টেম স্থাপন করা হয়েছে। এ ছাড়াও যেসব রাস্তায় মানুষের চলাচল বেশি অর্থাৎ রাস্তার মোড়ে মোড়ে বাকা রাস্তার মিডিলে হাটবাজারসহ জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে এ পর্যন্ত ৩০০টি সোলার প্যানেল ল্যাম্পপোস্ট (স্ট্রিট লাইট) স্থাপন করা হয়েছে।

উলে গ্রামের মানুষ এখন যেকোনো সময় নির্দ্বিধায় রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে পারছেন। সোলার প্যানেলের আলোয় গ্রামীণ জনপদে কমেছে চুরি-ছিনতাইসহ নানা অপরাধ কর্মকান্ড।

ল্যাম্পপোস্টের আলোতে সান্ধোকালীন ভ্রাম্যমাণ দোকান দিয়ে জমজমাট ব্যবসা করছেন ক্ষুদে ব্যবসায়ীরা।

গত সোমবার রাত ৯টায় সরেজমিন ঘুরে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের মাঝিবাড়ি বাসস্ট্যান্ড বাসিন্দা দুলাল ফারাজী, ভ্যান-রিকশা গ্যারেজ মালিক খলিলুর রহমান হাওলাদার ও বাদশারহাট গ্রামের আ. সাত্তার খান এ প্রতিনিধিকে জানান, ঘুটঘুটে অন্ধকারের কারণে এক সময় এ মাঝিবাড়ি বাসস্ট্যান্ডের তিন রাস্তার মোড়ে সন্ধ্যার পর কোনো মানুষ থাকত না। দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়েছে অনেককে। বর্তমানে বাসস্ট্যান্ডের রাস্তায় বাতি দেওয়ায় সন্ধ্যার পরে পুরো বাসস্ট্যান্ড এখন আলোকিত হয়ে থাকে। রাস্তায় বাতি দেওয়াতে আমাদের অনেক সুবিধা হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. নাসির উদ্দিন জানান, বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে সোলার প্যানেল সরবরাহ করা হচ্ছে। রাতের বেলায় উপজেলার রাস্তাঘাট ও হাটবাজারসহ জনগুরুত্বপূর্ণ স্থান আলোকিত করার লক্ষ্যে সোলার প্যানেলের স্ট্রিট লাইট স্থাপন করা হয়েছে।

এ সম্পর্কে ইউএনও মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘বর্তমান প্রধানমন্ত্রী এ প্রকল্পের মাধ্যমে একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছে। যার সফলতা ইতোমধ্যে সাধারণ মানুষ পেতে শুরু করেছে।’

 

"