বাবার সম্পদই কাল হলো

ধনবাড়ীতে বিবাহের জালে কিশোর সাগর

প্রকাশ : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০

ধনবাড়ী (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে বিবাহের জালে ফেঁসে গেছে সাগর নামে এক কিশোর। বাবার আর্থিক সচ্ছলতা আর গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্বের শিকার হয়ে দুর্বিষহ জীবন পার করছে সে। তাকে কথিত বিবাহের মারপ্যাঁচে ফেলে হাজতবাসের পাঁয়তারা করছে একটি চক্র। একমাত্র সন্তানের করুণ পরিণতি ও সম্মানের কথা ভেবে দিশাহারা তার পরিবার। ঘটনাটি ধনবাড়ী উপজেলার বলিভদ্র গ্রামের কৃষক মো. নূর মোহাম্মদের কিশোর পুত্র মো. সাগর মন্ডলের (১৪) সঙ্গে ঘটে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি উপজেলার বলিভদ্র গ্রামের কিশোর মো. সাগর মন্ডলকে একটি চক্র ফুসলিয়ে একই গ্রামের কিনু মন্ডলের মেয়ে কল্পনা আক্তারের সঙ্গে বিয়ে পড়িয়ে দেয়।

নাম প্রকাশ না করার স্বার্থে ওই গ্রামের এক প্রবীণ ব্যক্তি বলেন, ছেলের পরিবারকে আর্থিক ক্ষতি আর সামাজিকভাবে হেয় করার জন্য একটি চক্র এ বিয়ের ঘটনা ঘটিয়েছে।

ছেলের বাবা বলেন, ‘আমার বিবাহ হয়েছে ২০০০ সালে। আমার ছেলের জন্ম হয়েছে ১২ মার্চ ২০০৪ সালে। আমার ছেলের প্রকৃত জন্মতারিখ এটি হলেও আমার শত্রুপক্ষ কোর্টে ভুয়া জন্মনিবন্ধনে আমার ছেলের জন্মতারিখ ২৩ নভেম্বর ১৯৯৭ উল্লেখ করে গত ৮ জুলাই ২০১৮ কোর্টে বিবাহ সম্পন্ন করেছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমার বিবাহের ৭ বছর আগে আমার ছেলের কীভাবে জন্ম হলো, এটি আমি ভেবে কূলকিনারা করতে পারছি না।’

বলিভদ্র ইউপি চেয়ারম্যান মিন্টু বলেন, ‘আমার জানা মতে সাগরের পরিবারটি সচ্ছল। ছেলেটি আত্মভোলা ধরনের। তাদের আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য কোনো পক্ষ এই কিশোরকে বিবাহের জালে ফেলেছে। আমি তার জন্মনিবন্ধন পর্যালোচনা করে দেখেছি, তার বয়স ১৪ বছরের বেশি নয়।’

বলিভদ্র দাখিল মাদরাসার সুপারিনটেনডেন্ট বলেন, ‘সাগর মন্ডল আমার মাদরাসা থেকে ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত জেডিসি (অষ্টম শ্রেণি) পরীক্ষায় অংশ নিয়ে এক বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছে। সে অত্যন্ত সরল প্রকৃতির। আমার মনে হয়, কেউ ছেলেটির ক্ষতি করার চেষ্টা করছে।’

"